advertisement
আপনি দেখছেন

অবিশ্বাস্য একটা ম্যাচ খেলল প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি)। বুধবার রাতে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে শেষ আটের থ্রিলার ম্যাচে আটালান্টাকে ২-১ গোলে হারিয়েছে ফরাসি জায়ান্টরা। দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ে আড়াই মিনির জাদুতে দুই গোল করে ২৫ বছর পর টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে উঠেছে লিগ ওয়ান চ্যাম্পিয়নরা।

neymar mbappe psg 2020

স্নায়ুরুদ্ধ এই জয়ের পর ভীষণ উচ্ছ্বসিত পিএসজির কর্ণধার নাসের আল-খেলাইফি। আনন্দে আত্মহারা কাতারি ধনবুকের ঘোষণা দিয়ে বসলেন, কখনোই নেইমার কিংবা এমবাপ্পেকে ছাড়বেন না তিনি। কেন? সেটার উত্তর অবশ্য কাল রাতেই মিলেছে। নির্ধারিত ৯০ মিনিট পর্যন্ত ম্যাচে পিছিয়ে ছিল পিএসজি। জয়ের অপেক্ষায় ছিল আটালান্টা।

নিশ্চিত হারের মুখ থেকে মহানাটকীয় এক প্রত্যাবর্তন করেছে পিএসজি। দুই গোলের একটিও অবশ্য করেননি নেইমার কিংবা এমবাপ্পে। কিন্তু চুপো-মোটিং ও মার্কুইনহস মহামূল্যবান যে গোল দুটি করেছেন দুটোরই উৎস বিশ্বের সবচেয়ে দামি দুই ফুটবলার। নেপথ্য নায়ক দুজনই ম্যাচ শেষে গেলেন নায়কবনে। তবে ম্যাচ সেরা হয়েছেন নেইমার।

neymar and mbappe ucl 2019 20

দুজনের পারফরম্যান্সে তৃপ্ত পিএসজি প্রেসিডেন্ট। আনন্দে আত্মহারা আল-খেলাইফি ম্যাচ শেষে বলে দিলেন, ‘সবাই বলেছে প্যারিস চ্যাম্পিয়নস লিগের জন্য প্রস্তুত নয়। কিন্তু আমরা দুর্দান্ত মানসিকতার পরিচয় দিয়েছি। আমাদের দলে দুর্দান্ত সব খেলোয়াড় আছেন। আমাদের লক্ষ্যটা বড় ছিল। আজ (বুধবার) আমরা ফাইনাল নিয়ে ভাবিনি। শুধু সেমিফাইনাল নিয়ে ভেবেছি। এখানে মানসিকতার পরিবর্তন গুরুত্বপূর্ণ ছিল।’

পিএসজির কাতারি মালিক আরো বলেছেন, ‘আপনারাও (গণমাধ্যম), প্রত্যেকেই পিএসজিকে নিয়ে সংশয়ে আছেন। কিন্তু আমাদের জয়টা দরকার ছিল। এটা সম্ভব হয়েছে দলের সম্মিলিত চেষ্টায়। বিশেষ করে নেইমার এবং এমবাপ্পের কারণে। তারা বিশ্বসেরা ফুটবলার। গত কয়েক মাসে নেইমার দলকে বদলে দিয়েছেন। তারা দুজনই (পিএসজিতে) থাকবেন। কখনো কোথাও যাবেন না।’

sheikh mujib 2020