advertisement
আপনি দেখছেন

হার্নান ক্রেসপোর কথা মনে আছে? যাদের বয়স আঠারোর নিচে তাদের মনে থাকার কথা নয়। এর ঊর্ধ্বে থাকা ফুটবলপ্রেমীদের নামটা ভুলে যাওয়ার কথা নয়। চোখে হয়তো ভাসবে; মনে হতে পারে এই তো সেদিনের দৃশ্য। প্রতিপক্ষের বিপদসীমায় এমনভাবে শাপের মতো এঁকেবেঁকে বল নিয়ে ছুটতেন; যা শিহরণ জাগায়। খেলোয়াড়ি নৈপুণ্য ছাড়াও ক্রেসপোর লম্বা চুলের ঝাঁকড়ানিতে মোহিত হতেন ভক্ত-অনুসারিরা।

hernan crespo 2020হার্নান ক্রেসপো

বাহারি সেই চুল আর নেই। খেলোয়াড়ি ক্যারিয়ারের ইতি টানার পর ছেঁটে ফেলেন চুল। সেটাও অনেক বছর হয়ে গেছে। তারও অনেক আগে জাতীয় দল আর্জেন্টিনাকে বিদায় জানিয়েছেন। তাও প্রায় ১৪ বছর হয়ে গেছে। ক্লাব ক্যারিয়ারের ইতি টেনেছেন প্রায় নয় বছর হবে। কিন্তু ফুটবলকে যিনি বানিয়েছেন জীবনের ধ্রুবতারা তিনি কীভাবে তা থেকে দূরে থাকেন? ক্রেসপো শুরু করেন কোচিং ক্যারিয়ার। আর দ্বিতীয় এই অধ্যায়ে রোববার রাতে গড়লেন দারুণ এক ইতিহাস।

গত বছর ডিফেন্সা জাস্টিসিয়ার দায়িত্ব নিয়েই দলটাকে উপহার দিলেন মহাদেশীয় শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট। ল্যাটিন আমেরিকার দ্বিতীয় সারির টুর্নামেন্ট কোপা সুদামেরিকানা জিতল দলটি। কাল রাতে স্বদেশি ক্লাব লানুসকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে ক্রেসপোর ডিফেন্সা। তাতেই উচ্ছ্বাসের বাধ ভাঙল। অখ্যাত কোনো ক্লাব জিতে গেল মহাদেশীয় ক্লাব প্রতিযোগিতার শিরোপা।

hernan crespo 2006

ডিফেন্সার অবশ্য খুব বেশি বছর হয়নি যে পরিচিতি পেয়েছে। ২০১৪ সালে উঠে আসে শীর্ষস্থানীয় পেশাদার লিগে। এরপর উত্থান-পতনের মধ্য দিয়েই চলেছে দলটি। গেল বছর থেকে ক্রোসপোর ছোঁয়ায় রূপকথার যাত্রা শুরু। চ্যাম্পিয়ন দল হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে সাবেক দুই কোচ আরিয়েল হোলান ও সেবাস্তিয়ান বেকাসেসেরও অবশ্য ভূমিকা আছে।

ল্যাটিন আমেরিকার শীর্ষস্থানীয় ক্লাব প্রতিযোগিতার নাম কোপা লিবার্তাদোরেস। সেখান থেকে ছিটকে গিয়ে কোপা সুদামেরিকায় ঠাঁই নেয় ডিফেন্সা। এখানে এসেই বাজিমাত। যার নেপথ্য নায়ক ক্রেসপো। আর্জেন্টাইন কোচের এই সাফল্য নিশ্চয়ই ইউরোপিয়ান জায়ান্টদের চোখে পড়েছে। তেমনকিছু হলে নিকট ভবিষ্যতে হয়তো ইউরোপের কোনো ক্লাবের ডাগ আউটে দেখা যেতে পারে তাকে।

খেলোয়াড়ি ভূমিকায় ইতালিয়ান ক্লাবেই বেশি সময় কাটিয়েছেন ক্রেসপো। খেলেছেন পার্মা, লাৎসিও, ইন্টার মিলান, জেনোয়ার মতো ক্লাবে। জার্সি ও বুটজোড়া তুলে রাখার পর কোচ হিসেবে এই ইতালিতেই তৃতীয় সারির ক্লাব মডেনার দায়িত্ব নেন ক্রেসপো। সুবিধা করতে না পেরে চলে যান আর্জেন্টিনায়। সেখানে এক মৌসুম ব্যানফিল্ডের দায়িত্ব পালন করে যোগ দেন ডিফেন্সায়। এবার এই ক্লাবকে সাফল্য এনে দিয়ে ইতিহাস হয়ে গেলেন ক্রেসপো।

sheikh mujib 2020