advertisement
আপনি পড়ছেন

আর মাত্র কয়েক ঘন্টা। তারপরই জানা যাবে কার হাতে উঠতে যাচ্ছে এবারের ব্যালন ডি’অর। অবশ্য গত এক বছরের পারফরম্যান্স এবং সংশ্লিষ্টদের মতামত বলছে, ফ্রান্স ফুটবল ম্যাগাজিনের জনপ্রিয় এই পুরস্কারটি পেতে যাচ্ছেন আর্জেন্টিনার অধিনায়ক এবং সময়ের অন্যতম সেরা ফরোয়ার্ড লিওনেল মেসি।

lionel messi ballon dorআর একটি ব্যালন ডি’অর জেতার কাছাকাছি মেসি

ইতোমধ্যে ছয়বার ব্যালন ডি’অর জিতেছেন মেসি। ফুটবল ইতিহাসে যা সর্বোচ্চ। গুঞ্জন সত্য হয়ে আজ বাংলাদেশ সময় রাত আটটায় প্যারিসের থিয়েটার ডু চ্যাটেলেটে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিজয়ীর মুকুট পরলে নিজের অবস্থান আরও শক্ত করতে পারবেন বার্সেলোনার সাবেক তারকা খেলোয়াড় এবং অধিনায়ক।

মেসির সাথে ব্যালন ডি’অর জেতার দৌঁড়ে এগিয়ে আছেন বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ স্ট্রাইকার রবার্তো লেভানডফস্কি ও প্যারিস সেন্ট জার্মেই, পিএসজির ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপ্পে। তবে পছন্দের তালিকার সেরা তিনে নেই ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। এখন পর্যন্ত দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পাঁচবার মর্যাদাপূর্ণ পুরস্কারটি জিতেছেন রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক ফুটবলার।

lionel messi copa america trophyআর্জেন্টিনার কোপা আমেরিকার শিরোপা জয়ে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন মেসি

ব্যালন ডি’অরের জন্য কিছুদিন আগে ৩০ জন খেলোয়াড়ের সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রকাশ করে ফ্রান্স ফুটবল ম্যাগাজিন। ১৮০ জন নির্বাচিত সাংবাদিকের মধ্যে ভোটে সেই তালিকা ছোট করে পাঁচ জনে আনা হয়। এরপর পঞ্চাশজন বিশেষজ্ঞ সাংবাদিক একটি পয়েন্ট সিস্টেম ব্যবহার করে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়কে ভোট দেন। এই ভোটাভুটি শেষ হয়েছে গত ২৪ নভেম্বর।

ব্যালন ডি’অরের জন্য গত মৌমুমে একজন খেলোয়াড়ের মোট গোল, অ্যাসিস্ট, নির্দিষ্ট সেই খেলোয়াড়ের দলের পারফরম্যান্সের বিষয়টি বিবেচনায় আনা হয়। বিশ্ব খ্যাত এই পুরস্কারটির জন্য খেলোয়াড়ের জেতা ট্রফিগুলোও হিসেব করা হয়।

গত মৌসুমে স্প্যানিশ লা লিগায় বার্সেলোনার হয়ে সবচেয়ে বেশি গোল করে পিচিচি ট্রফি জিতেছেন মেসি। এছাড়াও জুলাইয়ে আর্জেন্টিনার কোপা আমেরিকা জয়ে রেখেছেন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। চার গোলের পাশাপাশি বেশ কয়েকটি অ্যাসিস্টও করেছেন। এজন্য ল্যাটিন আমেরিকান অঞ্চলের সবচেয়ে বড় টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছিলেন ৩৪ বছর বয়সী মেসি। তাই অনেকে ধরেই নিচ্ছেন, এবার তার হাতেই উঠতে যাচ্ছে বহুল আকাঙ্ক্ষিত ব্যালন ডি’অর।