advertisement
আপনি পড়ছেন

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে হারানো রাজত্ব উদ্ধারের অভিযানে দুর্বার বেগে ছুটছে ফেভারিট লিভারপুল। মঙ্গলবার রাতে স্বপ্নযাত্রায় আরো একটা ধাপ পাড়ি দিয়েছে অল রেডরা। কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল জিতল ৩-১ গোলে। সহজ জয়টাও আবার এসেছে প্রতিপক্ষ বেনফিকার মাঠ থেকে।

benfica 1 3 liverpoolসেমিফাইনালের পথে লিভারপুল

দুর্দান্ত এই জয়ে সেমিফাইনালের পথে অনেকটাই এগিয়ে গেল লিভারপুল। আগামী ১৩ এপ্রিল ঘরের মাঠ অ্যানফিল্ড স্টেডিয়ামে শেষ আটের দ্বিতীয় লেগের ম্যাচ খেলবে ইংলিশ জায়ান্টরা। ওই ম্যাচে ড্র করলেই চলবে ক্লপের শিষ্যদের। এক গোলের ব্যবধানে হারলেও সমস্যা হবে না। মূল কাজটা যে প্রথম লেগেই সেরে রাখল তারা!

লিভারপুল জয় প্রায় নিশ্চিত করেছে ফেলেছে প্রথমার্ধেই। দ্বিতীয়ার্ধে লড়াইয়ে ফেরার আভাস দিয়েছিল বেনফিকা। সেটা ওই পর্যন্তই। ম্যাচের শেষ দিকে আরো একটা গোল করে পর্তুগিজ জায়ান্টদের ফেরার স্বপ্ন গুঁড়িয়ে দিয়েছে ইংলিশ ক্লাবটি। লিভারপুলের এই জয়ের একক নায়ক অবশ্য কেউ নেন। দল জিতেছে সম্মিলিত পারফরম্যান্সের ওপর দাঁড়িয়ে।

বেনফিকার মাঠে ১৭ মিনিটে লিভারপুলকে লিড এনে দেন ইব্রাহিমা কোনাতে। লিভারপুল এবং চ্যাম্পিয়নস লিগে এটাই প্রথম গোল তার। ঠিক ১৭ মিনিট পরই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সেনেগালিজ ফরওয়ার্ড সাদিও মানে। গোলের উৎস লুইজ দিয়াজ। ম্যাচের ৮৭ মিনিটে নিজেই জালের ঠিকানা খুঁজে নেন কলম্বিয়ান উইঙ্গার।

তাতেই শেষ হয়ে যায় বেনফিকার সমতায় ফেরার স্বপ্ন। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই লিভারপুলকে একটি গোলের শোধ দেয় স্বাগতিক শিবির। ৪৯ মিনিটে ডারউইন নুনেজ ব্যবধান কমান। স্কোর দাঁড়ায় ২-১। এরপর সমতায় ফিরতে আপ্রাণ চেষ্টাই করেছে বেনফিকা। তাদের সব প্রচেষ্টা মাটি করে দেয় লিভারপুলের রক্ষণ বিভাগ।

ঘরের মাঠে এই হারে কার্যত শেষ হয়ে গেল বেনফিকার অভিযান। টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে ফিরতি লেগে দারুণ কিছু করতে হবে তাদের। প্রশ্ন হচ্ছে, ঘরের মাঠে স্রেফ অসহায় আত্মসমর্পণ করা বেনফিকা লিভারপুলের দুর্গে ঘুরে দাঁড়াতে পারবে তো? ফিরতি লেগে অবশ্য তাদের জিতলেই হবে না, এর সঙ্গে থাকবে কঠিন শর্ত। জিততে হবে ৩-০ গোলে। গোল হজম করলেই বিপদ!