advertisement
আপনি পড়ছেন

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে মহা অঘটনের শিকার হয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। বাভারিয়ানদের ছিটকে দিয়ে টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে উঠে যায় কখনো স্প্যানিশ লা লিগা জিততে না পারা ভিয়ারিয়াল। শেষ আটে প্রথম লেগে বায়ার্নকে ১-০ গোলে হারিয়ে দেয় তারা। ফিরতি লেগে বায়ার্নকে তাদেরই মাঠে ১-১ গোলে রুখে দেয় ভিয়ারিয়াল।

julian nagelsmann 1বায়ার্ন কোচ ইউলিয়ান ন্যাগলসম্যান

দুই লেগ মিলিয়ে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে থাকায় ১৬ বছর পর শেষ চারের টিকিট কাটে স্প্যানিশ ক্লাবটি। আর প্রতিযোগিতা থেকে বিদায় নেয় বায়ার্ন মিউনিখ। অপ্রত্যাশিত এই ফলাফলের পর বাভারিয়ানদের প্রধান কোচ ইউলিয়ান ন্যাগলসম্যান বেশ চাপে আছেন। সর্বমহল থেকে সমালোচিত হচ্ছেন তিনি। জার্মান কোচকে সরিয়ে দেওয়ারও দাবি উঠেছে।

বায়ার্ন মিউনিখের বেশ কিছু সমর্থক তো ক্ষোভে ফুঁসছেন। ক্লাবের প্রধান কোচকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করছেন অনেকেই। বায়ার্নের অনেক ভক্ত হুমকিও দিচ্ছেন কোচকে। তা কয়টি হুমকি পেয়েছেন ন্যাগালসম্যান? সংখ্যাটা আপনার মাথা ঘুরিয়ে দিতে পারে। ভক্তদের কাছ থেকে সাড়ে চার শ’ হত্যার হুমকি পেয়েছেন জার্মান কোচ।

এতে করে শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন তিনি। শুক্রবার সংবাদমাধ্যমকে বায়ার্ন মিউনিখ কোচ বলেছেন, ‘আমি জানি, সব জায়গা থেকেই আমি সমালোচিত হবো। এটাই স্বাভাবিক এবং আমি এই পরিস্থিতি সামাল দিতে সক্ষম। কিন্তু ইন্সটাগ্রামে ৪৫০টা হত্যার হুমকি পাওয়া, এটা সহজ নয়।’ বায়ার্ন কোচ যে আতঙ্কে আছেন তা বোঝা যাচ্ছে তার কথাতেই।

ন্যাগলসম্যান যোগ করেন, ‘সমালোচনা এবং হত্যার হুমকি দুটি আলাদা বিষয়। প্রতি ম্যাচ শেষেই আমি এমনটা পেয়ে থাকি। কিন্তু আমি তাদের পাঠানো সব বার্তা মুছে ফেলি। মানুষ তাদের যা মনে চায় তা লিখতে পারে। কিন্তু তাদের বোধহয় ভাবা উচিত তারা কী লিখছে। তাদের চিন্তাভাবনা হয়তো ঠিক আছে। কিন্তু এটা খুব বাজে একটা বিষয়।’

ভিয়ারিয়ালের হাত ধরে বিদায় নেওয়ার পর দুই লেগের ম্যাচেরই ভিডিও দেখেছেন বায়ার্ন মিউনিখ কোচ। ন্যাগলসম্যান বলেছেন, ‘আমি মার্কো নেপ্পে এবং হাসানের সঙ্গে প্রতিদিন কথা বলছি। বুধবার আমি ম্যাচটি আবার দেখেছি একং কিছু দৃশ্য চিহ্নিত করেছি। গতকাল (বৃহস্পতিবার) আমি অলিভার কানের সঙ্গে দল নিয়ে কথা বলেছি। আমাদের উচিত হবে নতুন কিছু খেলোয়াড় আনা।’