advertisement
আপনি পড়ছেন

গত নভেম্বরের শেষদিকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হেড কোচের ভূমিকায় অবতীর্ণ হন রালফ র‌্যাগনিক। সাবেক আরবি লাইপজিগ বসের অধীনে ঘুরে দাঁড়ানোর বদলে উল্টো আরও বাজে পরিস্থিতির স্বীকার হয়েছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবটি। বিষয়টা ভেবে আক্ষেপ হওয়ার কথা র‌্যাগনিকের। কিন্তু এমন কোনো অনুভূতিই হচ্ছে না তার।

ralf rangnick 2রালফ র‌্যাগনিক

ব্যর্থতার কারণে গত ২১ নভেম্বর ওলে গুনার সুলশারকে বরখাস্ত করে ম্যানইউ। সাবেক নরওয়েজিয়ান ফুটবলারের স্থলাভিষিক্ত হিসেবে অন্তর্বর্তীকালীন দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয় র‌্যাগনিকের কাঁধে। এই কোচের অধীনে সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ২২ ম্যাচে নয় জয় পেয়েছে ইংল্যান্ডের প্রথম সারির ক্লাবটি। অন্যদিকে সবশেষ সাত ম্যাচের খতিয়ান আরও ভয়ঙ্কর, মাত্র একটিতে জয়ের মুখ দেখেছে ম্যানইউ।

ইতোমধ্যে সব ধরনের শিরোপার লড়াই থেকে ছিটকে গেছে ম্যানইউ। লিগে ৩১ ম্যাচ শেষে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে সাত নম্বরে অবস্থান করছে ইংলিশ জায়ান্টরা। সেরা চারে থেকে চ্যাম্পিয়নস লিগের আগামী মৌসুমে জায়গা করে নেওয়াই এখন দলটির প্রধান চ্যালেঞ্জ। সে চ্যালেঞ্জ জয় করে পাস মার্ক তোলাটা অনেক কঠিন হবে ম্যানইউর জন্য।

man utd sad 2নিজেদের হারিয়ে খুঁজছে ম্যানইউ

এমন দুর্দশা দেখে চরম হতাশা ম্যানইউর সমর্থকরা। গতকাল প্রশিক্ষণ মাঠের বাইরে ক্লাবের মালিকের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে অংশ নিয়েছেন অনেকেই। চলমান সঙ্কট থেকে বের না হতে পারলে প্রতিবাদ চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন সমর্থক গোষ্ঠী।

আক্ষেপ না থাকলেও ম্যানইউর পারফরম্যান্সে খুশি হতে পারছেন না র‌্যাগনিক। লিগে নরউইচ সিটির বিপক্ষে মাঠে নামার আগে তিনি বলেন, ‘না, কোনো আক্ষেপ নেই। আমি এতে মোটেও অনুশোচনা করি না। একজন ম্যানেজার হিসাবে আপনাকে সর্বদা প্রশ্ন করতে হবে এবং নিজেকে জিজ্ঞাসা করতে হবে আপনি আরও ভালো করতে পারতেন কি না। ক্লাবের হয়ে যা অর্জন করেছি তাতে আমি মোটেও খুশি নই।’