advertisement
আপনি পড়ছেন

সব জল্পনার অবসান হলো। রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে মার্কিন ফুটবলে পাড়ি জমালেন গ্যারেথ বেল। ‘হান্ড্রেড মিলিয়নম্যান’ খ্যাত ওয়েলস উইঙ্গারের দলবদলটা হলো অনেকটা চমকপ্রদভাবেই। তাতে লাভ হয়েছে এলএ গ্যালাক্সি, মেজর লিগ সকার (এমএলএস), রিয়াল মাদ্রিদ, বেল এবং তার এজেন্টের।

beckham earns huge money for bale s signing to lafcবেলের দলবদল অথচ টাকা পেলেন বেকহ্যাম!

চমকে দেওয়া তথ্যা হচ্ছে, বেলের দলবদলে টাকা পেয়েছেন প্রতিপক্ষ শিবিরের মালিক ডেভিড বেকহ্যামও। ৭৫ হাজার ডলার কমিশন পেয়েছেন ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক। বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৭০ লাখ টাকা। বেকহ্যামের কমিশন প্রাপ্তির কারণ বেলকে মার্কিন ফুটবলে আনতে সহায়তা করেছেন তিনি।

মার্কিন ক্লাব ইন্টার মিয়ামির মালিক বেকহ্যাম। রিয়াল মাদ্রিদ থেকে বেলকে এলএ গ্যালাক্সিতে আনতে তৃতীয় পক্ষ হিসেবে কাজ করেছেন তিনি। এমএলএস কর্তৃপক্ষের নিয়ম অনুসারে, বিদেশি কোনো তারকা খেলোয়াড়কে মার্কিন ফুটবলে আনাতে কেউ যদি ভূমিকা রাখেন তখন তাকে একটা সম্মানি দেওয়া হয়ে থাকে।

রিয়াল মাদ্রিদে বেলের সোনালি দিন ফুরিয়ে গেছে অনেক আগেই। সাবেক কোচ জিনেদিন জিদান ও বর্তমান কোচ কার্লো আনচেলত্তির অধীনে ব্রাত্য হয়ে পড়েন ওয়েলস সেনসেশন। তাকে সাবেক ক্লাব টটেনহাম হটস্পারে ধারে খেলতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। এর আগে বেলকে চায়নিজ ফুটবলেও পাঠাতে চেয়েছিল রিয়াল।

শেষ অবধি সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ছাড়তে হলো বেলকে। ইনজুরি ফর্মহীনতা তো আছেই, তাকে ছেড়ে দেওয়ার আরেক কারণ চড়া বেতন। রিয়ালে প্রতি মৌসুমে ২০ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি পারিশ্রমিক পেতেন ওয়েলস অধিনায়ক। এলএ গ্যালাক্সিতে সব মিলিয়ে বার্ষিক পাঁচ মিলিয়ন ডলারের কিছু কম অর্থ পাবেন বেল। তার দলবদলটা হয়েছে ফ্রি ট্রান্সফারে।