advertisement
আপনি পড়ছেন

ইউরোপিয়ান ফুটবলে এখন চলছে মৌসুম পরবর্তী বিরতি। আগামী আগস্টে শুরু হবে নতুন মৌসুম। মাঝের এই সময়টায় অবকাশ যাপন করছেন খেলোয়াড় এবং কোচিং স্টাফরা। ছুটি কাটাতে ফুটবলারদের বিশেষ পছন্দ ব্রাজিলের কোপাকাবানা বিচ ও স্পেনের ইবিজা বিচ। লিওনেল মেসি বেছে নিলেন দ্বিতীয়টিকে। এই মুহূর্তে স্বপরিবারে সেখানেই আছেন তিনি।

messi psg 5মেসি

ইবিজা বিচে স্ত্রী অ্যান্তোনেলা রোকুজ্জো ও বাচ্চাদের নিয়ে সময়টা ভালোই কাটছে প্যারিস সেন্ট জার্মেইর (পিএসজি) আর্জেন্টাইন সুপারস্টারের। বন্ধু-বান্ধব, ভক্তদের নিয়ে নাচ-গান, খাওয়া-দাওয়া নিয়ে ব্যস্ত তিনি। সেখানে মেসিকে সঙ্গ দিচ্ছেন বার্সেলোনার সাবেক সতীর্থ লুইস সুয়ারেজ, সেস্ক ফ্যাব্রিগাস, ফেরান তোরেস এবং তাদের বান্ধবীরা।

বিচের বাইরে থাকা ভক্তদেরও মনে রেখেছেন মেসি। আজ সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করে ইবিজা বিচে নিজের উপস্থিতির কথা জানান দেন তিনি। ভিডিওতে অবশ্য মেসি নেই। তার পোস্ট করা ভিডিওতে স্ত্রী রোকুজ্জোকে নাচতে দেখা যায়। ভিডিওর সেই দৃশ্য মুহূর্তেই বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে। ভিডিওতে দেখা যায় ফরাসি ডিজে ডেভিড গুয়েত্তার গানের তালে তালে নাচছেন তিন সন্তানের জননী।

ভিডিওর শেষ দিকে রোকুজ্জোর সঙ্গে যোগ দিতে দেখা যায় তার এক বান্ধবীকে। ১৩ সেকেন্ডে ভিডিওটি ঠিক কবে ধারণ করা হয়েছে তা অবশ্য নিশ্চিত নয়। তবে দৃশ্যটি যে মেসির ৩৫তম জন্মদিন (গত শুক্রবার, ২৪ জুন) উদযাপনের সময়ের তা অনুমান করা যাচ্ছে। ইন্সটাগ্রামে ৩৪৩ মিলিয়ন ফলোয়ারের জন্য সেটি শেয়ার করেছেন তিনি।

মেসি, সুয়ারেজ কিংবা ফ্যাব্রিগাস- তিনজনের কেউ এখন বার্সেলোনায় নেই। গত বছর বার্সা থেকে পিএসজিতে চলে আসেন মেসি। ফ্যাব্রিগাস ২০১৪ সালে ছাড়েন ন্যু ক্যাম্প। যোগ দেন চেলসিতে। আপাতত মোনাকো ‘বি’ দলে আছেন তিনি। সবার শেষে বার্সা ছাড়েন সুয়ারেজ। ২০২০ সালে কাতালানদের বিদায় জানিয়ে উরুগুয়েন স্ট্রাইকার নোঙর ফেলেন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে।

তোরেস অবশ্য মেসির সতীর্থ নন। তিনি খেলছেন বার্সেলোনাতেই। ভ্যালেন্সিয়ার একাডেমি থেকে উঠে আসা এই তরুণের অভিষেক হয় এই ক্লাবটির হয়েই। পরে ম্যানচেস্টার সিটি ঘুরে গত জানুয়ারিতে বার্সেলোনায় যোগ দেন তোরেস।