advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 34 মিনিট আগে

দক্ষিণ এশিয়া (এসএ) গেমসের চলমান আসরে শনিবার মাবিয়া আক্তার সীমান্তর পর স্বর্ণপদক পেয়েছেন জিয়ারুল ইসলাম ও ফাতেমা মুজিব। এ নিয়ে চলতি আসরে এখন পর্যন্ত মোট সাতটি সোনা পেল বাংলাদেশ।

sa games gold winnerস্বর্ণপদক জয়ী (বা থেকে) মাবিয়া আক্তার সীমান্ত, জিয়ারুল ইসলাম ও ফাতেমা মুজিব

দিনের শুরুতে প্রথম এবং এবারের আসরে পঞ্চমবারের মতো সোনার আসে মাবিয়ার হাত ধরে। পোখারায় মেয়েদের ভারোত্তোলনে ৭৬ কেজি ওজন শ্রেণিতে সোনা জিতেন মাবিয়া। তিনি মোট ১৮৫ কেজি (৮০ কেজি+১০৫ কেজি) ভার উত্তোলন করেছেন।

পরে স্ন্যাচে ৮০ কেজি এবং ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ১০৫ কেজিসহ মোট ১৮৫ কেজি ওজন তুলে সেরা হন জিয়ারুল। গত এসএ গেমসে ৬৩ কেজি ওজন শ্রেণিতেও সোনা জিতেছিলেন এ ভারোত্তোলক।

দিনের তৃতীয় এবং আসরের সপ্তম স্বর্ণপদকটি এনে দেন ফাতেমা। এসএ গেমসের এবারের আসরে প্রথমবারের মতো যুক্ত হওয়া ফেন্সিংয়ে মেয়েদের সাবরে এককে সেরা হয়েছেন এ অ্যাথলেট। 

গত ৩ ডিসেম্বর এমনই এক স্বর্ণময় দিনের দেখা পেয়েছিল বাংলাদেশ। আসরের দ্বিতীয় দিনের সকালে পরপর তিনটি স্বর্ণপদক জয় করেছিলেন বাংলাদেশের অ্যাথলেটরা।

কারাতের কুমি ইভেন্টে পুরুষ এককে অনূর্ধ্ব-৬০ কেজি ওজন শ্রেণিতে ফাইনালে পাকিস্তানের জাফরকে ৭-৩ পয়েন্টে হারিয়ে গত মঙ্গলবার সকালে দেশকে দিনের প্রথম সোনা এনে দেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অ্যাথলেট আল আমিন।

পরবর্তীতে, এসএ গেমসে বাংলাদেশের হয়ে প্রথম মেয়ে অ্যাথলেট হিসেবে এবং দিনের দ্বিতীয় স্বর্ণ নিয়ে এসেছিলেন মারজানা আক্তার পিয়া। কারাতে মেয়েদের কুমিতে অনূর্ধ্ব ৫৫ কেজির ফাইনালে পাকিস্তানের কউসার সানাকে ৪-৩ পয়েন্টে হারান তিনি।

আর বাংলাদেশকে প্রথম পদক এনে দেয়া হুমায়রা আক্তার মেয়েদের কুমিতে ওই দিনই অনূর্ধ্ব ৬১ কেজির ফাইনালে স্বাগতিক নেপালের আনু গুরংকে ৫-২ পয়েন্টে হারিয়ে কারাতে থেকে দিনের তৃতীয় এবং আসরের চতুর্থ স্বর্ণপদক এনে দেন।

এর আগে, এসএ গেমসের ১৩তম আসরে তায়কোয়ান্দো থেকে প্রথম সোনা পায় বাংলাদেশ। নিজের ইভেন্ট পুমসে সেরা হয়ে দিপু চাকমা এনে দেন এ পুরস্কার। গত সোমবার ছেলেদের ২৯ (প্লাস) বয়স ক্যাটাগরিতে ৮ দশমিক ২৮ ও ৭ দশমিক ৯৬ স্কোর গড়ে সেরা হন দিপু।

sheikh mujib 2020