advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাস আতঙ্কে সারাবিশ্ব এখন থমথমে। স্বাভাবিকভাবেই বন্ধ হয়ে গেছে গোটা দুনিয়ার প্রায়সব খেলাধুলা। নিকটতম ভবিষ্যতে যেসব প্রতিযোগিতা আছে সেটা নির্ধারিত সময়ে শুরু হবে কিনা তা নিয়েও রয়েছে সংশয়। সবচেয়ে বেশি অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে টোকিও অলিম্পিক ঘিরে।

tokyo 2020 olympic games

আগামী ২৪ জুলাই জাপানের টোকিতে শুরু হওয়ার কথা রয়েছে টোকিও অলিম্পিকের। কিন্তু আসরটা স্থগিত করার চাপ বাড়ছে সর্বমহল থেকে। যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের কয়েকটি দেশ প্রতিযোগিতা পেছানোর অনুরোধ করেছে। কানাডা তো অলিম্পিকে অংশ না নেওয়ারই সিদ্ধান্ত নিলো।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রীড়া যজ্ঞ অলিম্পিক। করোনাভাইরাস আতঙ্কের মধ্যেই আসরপূর্ব প্রস্তুতি নিচ্ছে আয়োজক দেশ জাপান। অনিশ্চয়তার মধ্যে আছে তারাও।  জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে প্রতিযোগিতা স্থগিত রাখার আভাস দিয়েছেন তাদের জাতীয় সংসদে। তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের জন্য চার সপ্তাহ অপেক্ষা করার কথা জানিয়েছে অলিম্পিক কমিটি।

কয়েকটি দেশ তাদের ক্রীড়াবিদদের আভাস দিয়েছে আগামী বছরের প্রস্তুতি নিতে। তাতে আসর এক বছর পেছানোর ইঙ্গিত মিলেছে। এর মধ্যে কানাডা জানিয়ে দিলো এই বছর অলিম্পিক হলে তারা টোকিওতে যাবে না। দেশটির খেলোয়াড়দের সঙ্গে আলোচনার পর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কানাডার অলিম্পিক ও প্যারা অলিম্পিক কমিটি।

অবশ্য এর আগেও টোকিও অলিম্পিক নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। ১৯৪০ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় টোকিওতে আসর বসার থাকলেও তা স্থগিত করে পরবর্তীতে আয়োজন করা হয়।