advertisement
আপনি পড়ছেন

ফের ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া। এর আগের দুবার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষায় ব্যর্থ হলেও এবারের পরীক্ষা সফল হয়েছে দেশটি। দক্ষিণ কোরিয়ার গণমাধ্যমগুলোতে ঢালাওভাবে প্রকাশ করা হয়েছে এই খবর।

north korea missile

এদিকে উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র ১২০০ মাইল বা ২০০০ কিলোমিটার উচ্চতায় পৌঁছেছিল বলে জানিয়েছে জাপান। দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী তোমোমি ইনাদা এ কথা স্বীকার করেন।

তিনি বলেন, আমরা মনে করছি, উত্তর কোরিয়া নতুন ধরণের ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা করেছে। কারণ আমাদের রাডারে ক্ষেপণাস্ত্রটির ২০০০ কিলোমিটারের বেশি উচ্চতায় ওঠার প্রমাণ পাওয়া গেছে।

এদিকে জাপানের প্রধান ক্যাবিনেট সচিব ইউশিহিদি সুগা জানিয়েছেন, প্রায় ৩০ মিনিট ধরে ২০০০ কিলোমিটারের বেশি উচ্চতায় উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পৌঁছলেও এটি জাপানের বিশেষ অর্থনৈতিক এলাকায় প্রবেশ করেনি। ফলে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানোর কোনো উপায় নেই।

এর আগে আজ রোববার সকালে একটি ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায় উত্তর কোরিয়া। দেশটির রাজধানী পিয়ংইয়ং থেকে উত্তর-পশ্চিম অঞ্চল কুসং শহরের কাছাকাছি থেকে এই ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়।

উৎক্ষেপণের পর প্রায় ৭০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে জাপান সাগরে গিয়ে পড়েছে ক্ষেপণাস্ত্রটি। উত্তর কোরিয়া ক্ষেপণাস্ত্রের এই সফল পরীক্ষা এমন সময় চালালো, যখন দক্ষিণ কোরিয়ার নতুন প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন মাত্র শপথ নিয়েছেন।

উত্তর কোরিয়া যুক্তরাষ্ট্রে পরমাণু হামলা চালানোর ক্ষমতা অর্জন করতে পারে এই শঙ্কায় এশিয়ার দেশটির এই পরীক্ষা চালানো থামাতে সব রকমের চাপ প্রয়োগ করে যাচ্ছে মার্কিনিরা।