advertisement
আপনি দেখছেন

অভিশংসনের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের পদ হারাতে পারেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এমন মন্তব্য করেছেন ডেমোক্রেটিক পার্টির নেতা হিলারি ক্লিনটন। তিনি সর্বশেষ মার্কিন নির্বাচনে ট্রাম্পের কাছে হেরে যান। যদিও নির্বাচন- পূর্ব বিভিন্ন জরিপে বেরিয়ে এসেছিলো যে, যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ হিলারিকেই প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেখতে চান।

hilary clinton says trump might face impeachment

কিছুদিন আগে মার্কিন ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (এফবিআই) প্রধান জেমস কোমিকে বরখাস্ত করেন ট্রাম্প। হিলারি মনে করেন, এর মধ্যমে কর্তৃত্ববাদী শাসনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে চাইছেন তিনি। এ কারণেই অভিসংশনের মুখে পড়তে হতে পারে তাকে।

হিলারি বলেন, ‘যখন কোনো ক্ষমতাবান ব্যক্তির বিরুদ্ধে অপরাধ প্রমাণিত হয় এবং তা নিয়ে প্রশ্ন করে কেউ আক্রমণের মুখে পড়ে, তখন বুঝতে হয় সমাজ আর মুক্ত নয়। ইতিহাসে এভাবে কর্তৃত্ববাদী শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।’

সম্প্রতি ওয়েলেসলি কলেজের এক আয়োজনে এ সব কথা বলেন হিলারি। সেখানে তিনি আমেরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট রিচার্ড নিক্সনের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘নিক্সন ওয়াটারগেট কেলেঙ্কারিতে ফেঁসে গিয়েছিলেন। পরে সেই ঘটনা তদন্ত করা প্রসিকিউটরকে বহিস্কার করেছিলেন তিনি। এ ঘটনার জেরে নিক্সনকেই পদত্যাগ করতে হয়েছিলো।’

এফবিআই প্রধানকে বরখাস্ত করার মাধ্যমে আমেরিকান রাজনীতিকদের কাছে ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্রমশই এক বিরুক্তির নাম হয়ে উঠেছেন। সাম্প্রতিক বিদেশ সফরেও লজ্জাজনক সব কাণ্ডকারখানা করেছেন তিনি। যা নিয়ে আমেরিকায় ফুঁসে উঠছে ট্রাম্প- বিরোধী জাগরণ।