advertisement
আপনি পড়ছেন

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধের আহ্বান জানিয়ে কড়া সতর্কবার্তা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। একইসাথে জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনের তদন্ত দলকে মিয়ানমারে যাওয়ার অনুমতি এবং কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়ন করতে তাগাদা দিয়েছে মার্কিন সিনেট।

save rohingya

গত শুক্রবার মার্কিন সিনেটের এক যৌথ প্রস্তাবে মিয়ানমারের প্রতি রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধে এ আহ্বান জানায় যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন কংগ্রেসের পররাষ্ট্রবিষয়ক কমিটির চেয়ারম্যান এড রয়েস রোহিঙ্গা নিপীড়ন বন্ধ করতে মিয়ানমারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও গুরুত্বপূর্ণ নেতা অং সান সু চিকে চিঠি লিখেছেন। চিঠিতে তিনি রাখাইনে সহিংসতার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের শাস্তি নিশ্চিত করারও দাবি জানিয়েছেন।

আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষকদের মতে, চলমান রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র এসব বার্তা মিয়ানমারকে বেশ চাপে রেখেছে। এবার শুধু রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে বা রাখাইনে নিরাপদ পরিবেশের কথা বলেই যুক্তরাষ্ট্র দায় সেরে নেয়নি। বরং মার্কিন রাজনৈতিক মহল থেকে রোহিঙ্গা নাগরিক অধিকার নিশ্চিত এবং নির্যাতনের জন্য দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতেও তাগিদ দেয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ২৫ আস্ট থেকে নতুন করে চলমান এই সহিংসতার কারণে এখন পর্যন্ত ১০০০ জনেরও বেশি রোহিঙ্গা মারা গেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। জাতিসংঘের প্রতিবেদন অনুযায়ী ১ লক্ষ ৭৫ হাজারেরও বেশি মানুষ নিরাপত্তা বাহিনীর নির্যাতনের মুখে দেশ থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন। আর ২৬০০ বেশি ঘর বাড়ি পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে বলেও জাতিসংঘের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।