advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 20 মিনিট আগে

সৌদি আরবের প্রতাপশালী যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের ক্ষমতা খর্ব করা হয়েছে। সম্প্রতি তার ক্ষমতা হ্রাসের বিষয়টি সিনিয়র মন্ত্রীদের সামনে জানিয়েছেন বাদশাহ সালমান। এরপর গেল দুই সপ্তাহ ধরে যুবরাজকে কোনো উচ্চপর্যায়ের সভায় দেখা যায়নি। বিশ্বস্ত সূত্রের বরাত দিয়ে প্রভাবশালী আন্তর্জাতিক একাধিক গণমাধ্যম এ খবর দিয়েছে। তবে এ বিষয়টি নিয়ে আনুষ্ঠানিক কোনো কিছু এখনও জানায়নি রিয়াদ।

mohammad bin salman

সোমবার দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সপ্তাহখানেক আগে বাদশাহ সালমান তার ছেলে মোহাম্মদের ক্ষমতা খর্ব করার বিষয়টি প্রকাশ করেন। বিষয়টি সিনিয়র মন্ত্রীদের অবহিত করেন বাদশাহ নিজেই। এমনকি সৌদি বিনিয়োগ ও অর্থনৈতিক সংস্কারের ক্ষেত্রেও যুবরাজের রাশ টানা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এতে আরো বলা হয়, সিনিয়র মন্ত্রীদের ওই উচ্চ পর্যায়ের সভায় মোহাম্মদকে উপস্থিত থাকতে বলেছিলেন বাদশাহ সালমান। কিন্তু সেখানে কী ঘটতে যাচ্ছে, তার আভাস পেয়েই যুবরাজ সভায় উপস্থিত হননি। এতে বিষয়টি অনেকটাই স্পষ্ট হয়ে যায়।

সূত্র দ্য গার্ডিয়ানকে জানায়, মোহাম্মদের পরিবর্তে বিনিয়োগবিষয়ক দায়িত্ব পেয়েছেন বাদশাহর বিশ্বস্ত পরামর্শক মুসায়েদ আল আইবান। হার্ভার্ডে পড়াশোনা করা মুসায়েদ বর্তমানে সৌদির জাতীয় নিরাপত্তা পরামর্শক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এ ব্যাপারে তথ্য জানতে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থিত সৌদি দূতাবাসে যোগাযোগ করা হলেও সেখানকার কর্মকর্তারা এ ব্যাপারে কিছু বলতে রাজি হননি। অন্যরাও কেউ এ ব্যাপারে মুখ খুলছেন না।

sheikh mujib 2020