advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 57 মিনিট আগে

গত শুক্রবার (১৫ মার্চ) নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলায় অন্তত ৫০ জন নিহত এবং ৬০ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আতঙ্কিত দেশটির মুসলিমরা। তাই তাদের প্রতি সমর্থন ও শোক জানানোর অংশ হিসেবে আগামী শুক্রবার (২২ মার্চ) দেশটির অন্য ধর্মের সকল নারীকে হিজাব পড়ার আহ্বান জানানো হচ্ছে।

new zealands prime ministerহামলার পর মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকদের কাছে সম্প্রতি সমবেদনা জানাতে যান দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা আর্ডার্ন, এ সময় তার মাথায় এভাবেই কাপড় পরা ছিল।

এ জন্য অনলাইনে হ্যাশট্যাগ #হেডক্রাফফরহারমনি শীর্ষক প্রচার চালাচ্ছে একটি গ্রুপ, যাতে আগামী শুক্রবার দেশটির মুসলমানদের প্রতি ভালোবাসা, সমর্থন ও সমবেদনা জানিয়ে সব ধর্মের নারীরা হিজাব পড়েন।

এর উদ্দেশ্যে হিসেবে বলা হচ্ছে- দেশটির আতঙ্কগ্রস্ত মুসলমানদের প্রতি সমর্থন জানানো, তাদের ব্যথা-বেদনাকে স্বীকার করা এবং ভয়াবহ ওই ট্র্যাজেডি নিউজিল্যান্ডবাসীর মধ্যে ভাগাভাগি করে নেওয়া।

দেশটির গণমাধ্যম স্টাফ.কো.এনজেড জানিয়েছে, গ্রুপটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘ক্রাইস্টচার্চে শুক্রবারের সন্ত্রাসী হামলায় যারা ৫০ মা, পিতা, শিশু, সহকর্মী ও বন্ধু হারিয়েছেন তাদের প্রতি আমরা আমাদের ভালোবাসা ও সমর্থন এবং শোক জানাতে চাই।’

খবরে বলা হচ্ছে, আফগানিস্তানে স্বেচ্ছাসেবক চিকিৎসক হিসেবে দীর্ঘ সময় কাজ করা থায়া আশমান এই আইডিয়া উদ্ভাবন করেন।

তিনি বলছেন, ‘আমি সেই নারীর কথা শুনেছি, যিনি আতঙ্কিত হয়ে ঘরের মধ্যে নিজেকে লুকিয়ে রেখেছেন, কারণ তারা এতটাই ভীত হয়েছেন যে, না জানি মাথায় হিজাব থাকলে আবার সন্ত্রাসবাদীর টার্গেট হয়ে যান। আমি বলতে চাই, ‘আমরা আপনার সাথে আছি, আমরা আপনাকে নিজের মতো ভাবতে দিতে চাই যেন আপনি নিজের বাড়িতে আছেন, আমাদের ভালোবাসা, সমর্থন ও শ্রদ্ধা আপনার সাথে আছে।’

এদিকে, দেশটির মুসলিম প্রতিনিধিরা এই আইডিয়াকে সমর্থন করেছেন এবং গভীরভাবে জড়িত আছেন।

দেশটির ইসলামিক ওমেন’স কাউন্সিল বলেছে, ‘এই সহমর্মিতা ও সমর্থন আমাদের সাদরে গ্রহণ করবে’।

নিউজিল্যান্ডের মুসলিম অ্যাসোসিশনের প্রেসিডেন্ট ইখলাক কাশকারি একে ‘চমৎকার আইডিয়া’ বলেছেন।

আয়োজক গ্রুপটির পক্ষ থেকে দেশটির নারীদের উদ্দেশ্যে বলা হয়েছে, ওই দিন যেন তারা বন্ধু-বান্ধব, সহকর্মী তথা অন্যদের সঙ্গে কর্মস্থান, স্কুল বা খেলার মাঠে অর্থাৎ যে যেখানে থাকবেন সেখান থেকেই হিজাব পরে ছবি তুলে উল্লিখিত হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করেন।

sheikh mujib 2020