advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 32 মিনিট আগে

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলা চালানো খ্রিস্ট ধর্মীয় উগ্রবাদী শ্বেতাঙ্গ সন্ত্রাসী ব্রেনটন টারান্টকে আজীবন কারাগারে কাটাতে হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী উইনস্টন পিটারস।

brenton tarrant mosque attacker

শুক্রবার তুরস্কের ইস্তাম্বুলে ইসলামিক সহযোগিতা সংস্থা ওআইসি আয়োজিত জরুরি বৈঠকে পিটারস এ কথা বলেন।

গত শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে জুমার নামাজের সময় চালানো হামলায় অন্তত ৫০ মুসল্লি নিহতের প্রেক্ষাপটে এই জরুরি বৈঠক আহ্বান করে মুসলিম দেশগুলোর সংগঠন ওআইসি।

oic emergency meeting

তবে বিশেষ এ বৈঠকে নিউজিল্যান্ডসহ জাতিসংঘ ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) প্রতি প্রতিনিধি পাঠানোর আহ্বান জানানো হয়।

তুর্কি গণমাধ্যম ডেইলি সাবাহ বলছে, নিউজিল্যান্ডের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সন্ত্রাসী হামলার প্রেক্ষিতে নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় তদন্ত চলছে এবং দায়ী সন্ত্রাসীকে বাকি জীবন একাকি কারাগারের সেলে কাটাতে হবে।

পিটারস বলেন, ‘নিউজিল্যান্ডে মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকদের নিরাপত্তা ও সুরক্ষা নিশ্চিতে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হবে।’

পিটারসের বক্তব্যের পর তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত ক্যাভুসোগ্লু হামলার পর নিউজিল্যান্ড সরকারের দেওয়া ‘আন্তরিক সংহতির বার্তা’র প্রশংসা করেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা এখানে বলতে চাই যে, বিশ্বব্যাপী ইসলামভীতি ছড়ানোর বিরুদ্ধে আমরা সবাই একটি দেহের মতো।’

এ ছাড়া সব ধরনের ঘৃণ্য বক্তব্য, সহিংসতা ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ার অঙ্গীকারও ব্যক্ত করেন তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

অন্যদিকে, ওআইসির মহাসচিব ইউসেফ আল-ওথাইমীন মুসলিমবিদ্বেষী ঘৃণ্য বক্তব্যের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানান। সন্ত্রাসীদের কোনো ভাষা, ধর্ম ও বর্ণ নেই বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

গত সপ্তাহের ভয়াবহ হামলাকে মুসলমানদের জন্য ‘টার্নিং পয়েন্ট’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, তারা (মুসলিম) আর সন্ত্রাস দমনে কঠোর পদক্ষেপ নিতে গড়িমসি করবে না।

sheikh mujib 2020