আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 35 মিনিট আগে

ভারত সীমান্তে ড্রোন ও বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করেছে পাকিস্তান। ভারতীয় রাডারে এসব নজরদারি করার ড্রোন ও বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েনের বিষয়টি ধরা পড়েছে বলে রাশিয়ার গণমাধ্যম স্পুটনিক এ খবর দিয়েছে।

pakistan deployed drone in inidan border

খবরে বলা হয়েছে, পাকিস্তানের কয়েকটি সামরিক ঘাঁটি এবং বড় নগরে এলওয়াই-৮০ ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্রের (স্যাম) পাঁচটি ইউনিট মোতায়েন করা হয়েছে। পাশাপাশি মোতায়েন করা হয়েছে আইবিআইএস-১৫০ বিমান প্রতিরক্ষায় ব্যবহৃত নজরদারি রাডার ইউনিট।

কিছু ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমও গোয়েন্দা প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে এমন খবর প্রকাশ করেছে বলে জানিয়েছে ইরানি গণমাধ্যম পার্সটুডে। এতে বলা হয়েছে, কাশ্মিরের পুলওয়ামা হামলার পরিপ্রেক্ষিতে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের বালাকোটে ভারত যে বিমান হামলা চালায় তার পর এ ধরনের উদ্যোগ নিয়েছে ইসলামবাদ।

খবরে বলা হয়েছে, স্যামের পাশাপাশি চীনের তৈরি রেইনবো সিএইচ-৪ এবং সিএইচ-৫ ড্রোনও মোতায়েন করা হয়েছে সীমান্তে। এসব কাশ্মির সীমান্তে গোয়েন্দা তৎপরতা এবং প্রয়োজনে হামলার জন্য ড্রোন বহরকে মোতায়েন করা হয়েছে।

কোনো কোনো প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পাকিস্তান আশঙ্কা করছে, ভারতের লোকসভা নির্বাচনের আগে জনগণের সমর্থন টানতে মোদি সরকার আবারও পাকিস্তানের অভ্যন্তরে হামলা চালাতে পারে। আর সে ধরনের আশঙ্কা থেকেই পূর্ব সতর্কতা হিসেবে ওই পদক্ষেপ নিয়েছে পাকিস্তান সরকার।

এর আগে গতকাল শনিবার কিছু গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, চীন ও পাকিস্তানের মধ্যকার করিডরের নিরাপত্তার অংশ হিসেবে ভারত সীমান্ত থেকে মাত্র ৯০ কিলোমিটার দূরে চীনা সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।