advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 01 মিনিট আগে

৩০ বছর ক্ষমতায় থাকার পর বৃহস্পতিবার উত্তর আফ্রিকার দেশ সুদানে অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতাচ্যুত হন প্রেসিডেন্ট বশির। পরে আজই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সুদানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী আওয়াদ মোহাম্মদ আহমেদ ইবনে আউফ। ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে দেশটির দারফুর অঞ্চলে গণহত্যার অভিযোগ রয়েছে।

bashir sudan

ওমর আল বশিরের অভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে সুদানে তার ৩০ বছরের শাসনের অবসান হয়েছে। তার অভ্যুত্থানের পর অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করা হয়েছে। জানা গেছে, সেখানে দুই বছর সামরিক শাসনের পরে সেনাবাহিনী নির্বাচনের দিকে যাবে।

দেশটির প্রতিরক্ষমন্ত্রী আওয়াদ মোহাম্মদ আহমেদ ইবনে আউফ জানান, সদ্য ক্ষমতাচ্যুত ৭৫ বয়সী বশিরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। দেশ সেনাবাহিনী পরিচালনা করছে। সামনের তিন মাসের রাষ্ট্রীয় জরুরি অবস্থা বজায় থাকবে এবং সংবিধান স্থগিত করা হয়েছে। আগামী ২৪ ঘণ্টা দেশের সকল বিমানবন্দর বন্ধ থাকবে।

তবে সুদানের সরকারবিরোধী বিক্ষোভে নেতৃত্ব দেয়া সংগঠনগুলো কেবলমাত্র বেসামরিক অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে চান।

এদিকে বশিরকে ২০০৬ সালে শুরু হওয়া বিদ্রোহের সময় দেশটির দারফুর অঞ্চলে গণহত্যার অভিযোগে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। বলা হচ্ছে, সে সময় আনুমানিক ৩ লক্ষ মানুষ মারা যায়।

প্রসঙ্গত, ১৯৮৯ সাল থেকে সুদানের প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতায় আসেন ওমর আল বশির। দেশটিতে পাউরুটির দাম চার পয়সা বাড়ানোর কারণে গত বছরের ডিসেম্বর থেকে বশির সরকারের বিপক্ষে তীব্র আন্দোলন শুরু হয়। আর এই আন্দোলনের প্রেক্ষিতেই আজ বশিরকে দেশটির সেনাবাহিনী ক্ষমতাচ্যুত করে।

sheikh mujib 2020