advertisement
আপনি দেখছেন

পরমাণু উৎক্ষেপনের নিষেধাজ্ঞার পর উত্তর কোরিয়ার ওপর আরো একটি নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। নিষেধাজ্ঞার নতুন এই বিলে সই করেছেন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। যা গত সপ্তাহে কংগ্রেসে পাস হয়।

barak obama quba

মার্কিন নতুন এ নিষেধাজ্ঞার ফলে কোরিয়ার আর্থিক সীমাবদ্ধতার সৃষ্টি হবে। আর্থিক এই সীমাবদ্ধতা উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচিকে বাধাগ্রস্ত করবে। এছাড়াও জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে ওয়াশিংটন ও বেইজিং দেশটির ওপর বৈশ্বিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের ব্যাপারে আলোচনা করছে।

কংগ্রেসে নিষেধাজ্ঞা প্রস্তাবে বলা হয়, উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক যুদ্ধাস্ত্র উন্নয়নের জন্য অর্থের জোগান বন্ধের ব্যবস্থা করতে হবে। নতুন নিষেধাজ্ঞা অনুযায়ি, দেশটির পরমাণু বা সমরাস্ত্র সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীদের সম্পদ জব্দ করা হবে। প্রস্তাবিত বিলে উত্তর কোরিয়ায় ত্রাণ কর্মসূচি বাস্তবায়ন এবং দেশটিতে বেতার মাধ্যমে প্রচারণা চালানোর জন্য ৫ কোটি ডলারও বরাদ্দ দেয়া কথাও বলা হয়।

তবে কোরিয়া জানিয়ে, বিভিন্ন আন্তর্জাতিক চাপ থাকা সত্ত্বেও পারমাণবিক কর্মসূচি বন্ধ করবে না। উত্তর কোরিয়ার এমন সিদ্ধান্তে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদও নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে পারে। নিষেধাজ্ঞা প্রস্তাব নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও চীন আলোচনা করছে।

সম্প্রতি উত্তর কোরিয়া দূরপাল্লার রকেট উৎক্ষেপণ করেছে। যা দেশটির ওপর আরোপিত পরমাণু নিষেধাজ্ঞার অবমাননা। এ বিষষে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেন,উত্তর কোরিয়া জাতিসংঘের সনদ লঙ্ঘন করে পরমাণু পরীক্ষা চালাচ্ছে। দেশটির ওপর আরোপিত বিভিন্ন রিষেধাজ্ঞা তাদের পরিস্থিতিকে ঘোলাটে করতে পারে। দেশটির মিত্র রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিত চীনও মনে করে নতুন আরোপিত নিষেধাজ্ঞার কারণে উত্তর কোরিয়ার অর্থনৈতিক পরিস্থিতি আরো নাজুক করবে।

 

আপনি আরো পড়তে পারেন

সিরিয়ায় মার্কিন হামলা : নিহত ৪০

ইরাকে গণহত্যা : ৪০ জনের মৃত্যুদণ্ড

বিদেশি কর্মী নেয়া বন্ধ করে দিলো মালয়েশিয়া

sheikh mujib 2020