advertisement
আপনি দেখছেন

বিতর্কিত মুসলিমবিরোধী নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটি ভারতের লোকসভার পর এবার রাজ্যসভা থেকেও পাস করিয়ে নিল বিজেপি সরকার। বুধবার দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বিতর্কিত এই বিলটি পেশ করেন। পরে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ের পর ১২৫-১০৫ ভোটের ব্যবধানে এটি পাস হয়। এখন রাষ্ট্রপতি স্বাক্ষর করলেই বিলটি আইনে পরিণত হয়ে যাবে।

amit sah billরাজ্যসভায় বিল পেশ করছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ

বিলটি পেশ করার সময় অমিত শাহ বলেন, বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে আসা লাখ লাখ মানুষের সঙ্গে ধর্মীয় প্রতারণা হয়েছে। এ বিলের মাধ্যমে এ সকল মানুষদের পূর্ণ অধিকার দেয়া হবে।

পাশাপাশি ভারতে বসবাসকারী মুসলিমদের এ নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই আশ্বাস দিয়ে তিনি বলেন, এই বিল পাশ করার পেছনে কোনো ধরনের রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে নেই। পূর্বের সরকার বিষয়টির কোনো সমাধান করতে পারেনি। তাই এই মানুষগুলোর অধিকার ফিরিয়ে আনতে বিজেপি সরকার চেষ্টা করছে।

প্রসঙ্গত, ১৯৫৫ সালে পাশ হওয়া নাগরিকত্ব আইনে উল্লেখ আছে, অন্য দেশ থেকে ভারতে আসা কেউ যদি নাগরিকত্ব চায় সেক্ষেত্রে তাকে কমপক্ষে ১১ বছর এ দেশে বসবাস করতে হবে। পাশাপাশি এর পক্ষে যথেষ্ট প্রমাণ ও নথিপত্র উপস্থাপন করতে হবে।

কিন্তু নতুন করে সংশোধন হওয়া এ বিলটিতে বলা হয়েছে, ভারতে টানা ৫ বছর ধরে বসবাস করা অমুসলিমরা নাগরিকত্ব পাওয়ার জন্য অবেদন করতে পারবেন।

এদিকে বিজেপি সরকারের তীব্র সমালোচনা করে পশ্চিমবঙ্গের মূখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, যদি সব সম্প্রদায়ের মানুষকে নাগরিকত্ব দেয়া হয়, তাহলে সেটা মেনে নেয়া যায়। কিন্তু যদি ধর্মের ভিত্তিতে বৈষম্য করা হয়, তাহলে এর বিরুদ্ধে আন্দোলন করা হবে।