advertisement
আপনি দেখছেন

ইতালির উত্তরাঞ্চলীয় জেনোয়া বন্দরে যুদ্ধবিরোধী বিক্ষোভের মুখে পড়েছে সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন অস্ত্রসমৃদ্ধ কার্গো জাহাজ বাহরি ইয়ানবু। বন্দর শ্রমিক ও কয়েকটি মানবাধিকার সংগঠনের কর্মীরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন।

soudi ship

বিক্ষোভকারীরা দাবি করছেন, জাহাজটিতে থাকা অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম ইয়েমেনের বেসামরিক নাগরিক ও শিশুদের বিরুদ্ধে ব্যবহার করা হবে।

এর আগে ২০১৯ সালের মে মাসে জাহাজটি ইতালির জেনোয়া বন্দরসহ ইউরোপের বিভিন্ন বন্দর থেকে কয়েক কোটি ডলার মূল্যের সামরিক বিমানের যন্ত্রাংশ ভর্তি করে। এ কারণে তখন জাহাজটিতে বৈদ্যুতিক জেনারেটর লোড করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিল ইতালির শ্রমিক ইউনিয়ন।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালসহ বিশ্ব মানবাধিকার সংস্থাগুলো বলছে, ইয়েমেনে যুদ্ধ বন্ধ করতে এবং আন্তর্জাতিক দায়িত্ব পালনে যেসব দেশ ব্যর্থ হয়েছে তাদের মধ্যে ইতালিও রয়েছে। অথচ দেশটি ১৯৯০ সালে একটি আইন পাস করেছিল। সেখানে উল্লেখ আছে, যেসব দেশ অন্য দেশের ওপর আগ্রাসন চালাবে তাদের কাছে অস্ত্র বিক্রি করা হবে না।

soudi ship protest

ইতালির সংসদে উত্থাপন করা প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৬ সালে সৌদি আরবের কাছে ৪৩ কোটি ইউরোর অস্ত্র বিক্রি করেছে তারা। ২০১৮ সালে এসে সেই পরিমাণ কমে এক কোটি ৩০ লাখ ইউরোতে দাঁড়িয়েছে।

এদিকে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল দাবি করছে, সৌদি আরবের কাছে ইতালি সরকার কী পরিমাণ অস্ত্র বিক্রি করছে তার একটি সরকারি বিবৃতি চেয়েছিল তারা। কিন্তু ইতালি সরকার সে তথ্য দিতে রাজি হয়নি।

sheikh mujib 2020