advertisement
আপনি দেখছেন

চীনে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ থেকে বাঁচতে চুল কেটে ফেলছেন দেশটির হুবেই প্রদেশের উহান শহরের নার্সরা। চীনের এ শহর থেকেই প্রথম ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব হয়। 

wuhan nusrse cut hair

জানা যায়, কোভিড-১৯ ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে উহান শহরের হাসপাতালগুলোতে আক্রান্তদের জরুরি স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে যাচ্ছেন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। রোগীদের কাছ থেকে চিকিৎসক বা স্বাস্থ্যকর্মীদের শরীরে যাতে সংক্রমণ না ছড়ায় সে জন্য সর্বোচ্চ সতর্কতাও মেনে চলা হচ্ছে। তারপরও প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের থাবা থেকে মুক্তি পাচ্ছেন না তারা।

প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের আক্রান্ত হয়ে উহানে ইতোমধ্যে স্বাস্থ্যকর্মী, চিকিৎসক এমনকি হাসপাতালের পরিচালকেরও মৃত্যু হয়েছে। তাই আর ঝুঁকি না নিয়ে সংক্রমণের সকল পথ বন্ধ করতে নিজেদের চুল কেটে ফেলেছেন নারী স্বাস্থ্যকর্মীরা।

wuhan nurse cut hair

এর ফলে নারী স্বাস্থ্যকর্মীরা দুটো উপকার পাবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এক, চুলের মাধ্যমে সংক্রমণ ছড়ানোর সম্ভাবনা কমে যাবে। দুই, হাসপাতালে প্রবেশের পর স্বাস্থ্যকর্মীদের যে সুরক্ষা পোশাক পরতে হয়, তা পরিবর্তন করা সহজ হবে। পাশাপাশি বাঁচবে সময়ও।

এ বিষয়ে চুল কেটে ফেলা ২৬ বছর বয়সী নার্স দিং বলেন, তিনি অনেকদিন ধরে বড় চুল রাখছেন। কখনো সামন্যও কাটতে চাননি। কিন্তু করোনাভাইরাস মোকাবিলা করার জন্য এখন চুল কেটে ফেলেছেন।

এদিকে, চীনে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ২ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। সংক্রমিত হয়েছেন আরো ৭০ হাজার ৫৪৮ জন।

sheikh mujib 2020