advertisement
আপনি দেখছেন

জার্মানিতে দুটি শিশাবারে বন্দুকধারীর হামলায অন্তত ৮ জন নিহত এবং আরো ৮ জন আহত হয়েছে। গতকাল বুধবার ফ্রাঙ্কফুর্টে এ ঘটনা ঘটে। হামলাকারীদের ধরতে শহরে মেশিনগানধারী পুলিশ কর্মকর্তাদের পাশাপাশি অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

germany shooting bar

পুলিশের বরাত দিয়ে দেশটির গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, প্রথম হামলার ঘটনা ঘটে স্থানীয় সময় বুধবার রাত ১০টার দিকে শহরের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত মিডনাইট বারে। এরপর হামলাকারীরা দ্রুত গাড়িতে করে পালিয়ে যায়। তারপর এরেনা নামক বারে হামলার ঘটনা ঘটে।

খবরে বলা হয়েছে, মিডনাইট বারের সামনেই ৩ জন নিহত হন এবং এরেনা বারের সামনে নিহত হন ৫ জন। এ ঘটনায় কমপক্ষে ৫ জন মারাত্মক আহত হয়েছেন। তবে পুলিশের বরাত দিয়ে অন্য একটি গণমাধ্যম ৮ জন আহতের কথা বলেছে।

পুলিশ বলছে, সন্দেহভাজন বন্দুকধারীদের ধরতে অভিযান চলছে। হামলার উদ্দেশ্য সম্পর্কে এখনো স্পষ্ট কিছু জানা যায়নি।

উল্লেখ্য, এর আগে ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে বার্লিনে সন্ত্রাসীদের হামলায় ১২ জন নিহত হয়েছিলেন।

এ ছাড়া গত বছরের জুন মাসে দেশটির কনজারভেটিভ দলের রাজনীতিবিদ ওয়াল্টার লুয়েকিকে হত্যা করে বন্দুকধারীরা। তিনি উদার উদ্বাস্তু নীতি নিয়ে সোচ্চার ছিলেন।

সর্বশেষ গত শুক্রবার পুলিশ জার্মানির একটি শ্বেতাঙ্গ চরমপন্থী দলের ১২ সদস্যকে গ্রেপ্তার করে। পরে পুলিশ জানতে পারে, নিউজল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে যেভাবে মসজিদে হামলা চালানো হয়েছিল, সেভাবে জার্মানির কয়েকটি মসজিদে তারা হামলার পরিকল্পনা করছিল। আর তাদের পরিকল্পনার মূল লক্ষ্য ছিল, মসজিদে হামলার মাধ্যমে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করে অ্যাঙ্গেলা মেরকেল সরকারের পতন ঘটানো।