advertisement
আপনি দেখছেন

চীনে করোনাভাইরাসে সংক্রমণ ও মৃতের সংখ্যা কমতির দিকে থাকলেও বাইরের দেশগুলোতে তা বেড়ে চলেছে। সম্প্রতি এ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। গত ২৪ ঘণ্টায় চীনের প্রতিবেশী দেশ দক্ষিণ কোরিয়ায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরো দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৭ জনে।

corona south korea

বিষয়টি নিশ্চিত করে সোমবার দেশটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন আরো ১৬১ জন। এ নিয়ে দক্ষিণ কোরিয়ায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৭৬৩ জনে।

এর আগে রোববার করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এবং আরো বেশি মৃত্যুর বিষয়ে দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়। এর প্রাদুর্ভাবের বিস্তার রোধে ‘অভূতপূর্ব ও শক্তিশালী’ পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন।

বিবিসির বরাতে জানা যায়, দ্রুতই ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়তে পারে, এমন আশঙ্কা থেকে ইতোমধ্যে দেশটির দক্ষিণাঞ্চলের শহর দেয়াগো ও চেয়োংদোকে ‘বিশেষ নজরদারি এলাকা’ ঘোষণা করা হয়েছে। তিনজন সেনার শরীরে ভাইরাস শনাক্ত হওয়ায় সেনা ঘাঁটিগুলো বিচ্ছিন্ন করে রাখা হয়েছে।

এছাড়া দেয়াগো শহরের শপিংমল ও সিনেমা হলগুলো বন্ধ রাখা হয়েছে। গণপরিবহন একেবারে সীমিত পর্যায়ে নিয়ে আসা হয়েছে। ফলে শহরের রাস্তাঘাট ফাঁকা হয়ে গেছে।

স্থানীয় এক অধিবাসীর বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, শহরের পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে কোথাও বোমা হামলা হয়েছে। অনেকটা জঙ্গি হামলার মতো পরিস্থিতি বিরাজ করছে। শহরের একটি চার্চে প্রার্থনারত ৯০ জন মানুষের মধ্যে ভাইরাসটির সংক্রমণ ধরা পড়ার পর থেকে বাসিন্দাদের ঘরে থাকার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

এদিকে চীনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা অনেকটাই কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মারা গেছে মাত্র ১৬ জন। এ নিয়ে শুধু চীনেই মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ২৪৭৪ জনে।

sheikh mujib 2020