advertisement
আপনি দেখছেন

সিএএ ইস্যু নিয়ে ভারতের রাজধানী দিল্লি এখন রণক্ষেত্রে। সেখানে সহিংসতার ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২৩ জন নিহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কারফিউ জারি করা হয়েছে। গত সোমবার থেকে চলা এই সংঘাত হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গা পরিস্থিতি তৈরি করেছে। এসব ঘটনা পর্যবেক্ষণ করে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসির দাবি করে বলছে, সহিংসতায় মুসলিমরা টার্গেট হচ্ছেন। গত দুইদিনে মুসলিমদের বিভিন্ন দোকানপাট, ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান এমনকি ঘরবাড়ি পুড়তে দেখা গেছে।

delhi clash dies 17

দিল্লি মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল পরিস্থিতিকে এলার্মিং উল্লেখ করে সেনা মোতায়েনের অনুরোধ করেছেন।

বিবিসি বলছে, হামলার ঘটনায় যেসব তথ্য পাওয়া গেছে তাতে বোঝা যাচ্ছে ধর্মের ওপর ভিত্তি করে লোকজনের ওপর হামলা হয়েছে। আজ বুধবার দিল্লির একটি মসজিদে আগুন দেয়া হয়েছে। সেখানে গিয়ে দেখা গেছে পবিত্র কুরআনের কিছু পৃষ্ঠা যত্রতত্র পড়ে আছে। কিছু গ্রন্থ আংশিক পুড়েও গেছে। রাস্তায় লাঠি ও লোহার রড হাতে মুখোমুখি অবস্থানে দেখা গেছে হিন্দু ও মুসলিমদের। বিশেষ করে মৌজপুর, মুস্তাফাবাদ, জাফরাবাদ ও শিববিহারে অস্থিরতা বেশি।

দিল্লির তেগ বাহাদুর হাসপাতালের কর্মকর্তারা জানান, এখানে আহত অবস্থায় ১৮৯ জন ভর্তি হয়েছে। তাদের কেউ গুলিবিদ্ধ, কারো হাত-পা ভেঙে গেছে। আহতরা সবাই শঙ্কিত। তারা নিজেদের বাসায় ফিরে যেতে ভয় পাচ্ছেন।

এখন পর্যন্ত নিহতদের মধ্যে হিন্দু মুসলিম উভয় সম্প্রদায়ের মানুষ রয়েছে। তবে মুসলিমদের সংখ্যাই বেশি।

দিল্লির মুসলিম অধ্যুষিত এলাকাগুলোতে দোকানপাট, ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। আগুন নেভাতে আহত হয়েছেন অনেকে। সে তুলনায় অন্যান্য এলাকাগুলোতে অগ্নি সংযোগের ঘটনা তুলনামূলক কম হয়েছে।