advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (সিএএ) সমর্থক ও বিরোধীদের মধ্যে গত তিনদিন ধরে চলা সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত কমপক্ষে ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে আরো দুই শতাধিক। হামলা চালানো হয়েছে বিভিন্ন ঘরবাড়ি ও দোকানপাটে।

premkanta burn in fire

ভারতীয় গণমাধ্যমের বরাতে জানা যায়, এসব হামলার বেশিরভাগই ঘটেছে মুসলিম অধ্যুষিত এলাকাগুলোতে। আগুন দেওয়া হয়েছে মসজিদেও। তবে এরই মধ্যে নিজের জীবন বাজি রেখে মুসলিমদের পাশে দাঁড়ান দিল্লির শিব বিহার এলাকার বাসিন্দা সনাতন ধর্মালম্বী প্রেমকান্ত বাঘেল।

দিল্লিতে ঘটা সংঘর্ষের সময় দুর্বৃত্তরা প্রেমকান্তের প্রতিবেশী এক মুসলিম ধর্মালম্বীর বাড়িতে পেট্রোল বোমা মেরে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুন লাগার খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে ঘর থেকে বেরিয়ে আসেন প্রেমলাল। প্রতিবেশীদের জীবন রক্ষায় ঝাঁপিয়ে পড়েন তিনি। নিজের জীবন বাজি রেখে একে একে জ্বলন্ত ঘর থেকে বের করে আনেন ওই পরিবারের ছয় সদস্যকে।

এ সময় গুরুতর দগ্ধ হন প্রেমকান্ত। তার শরীরের ৭০ শতাংশ পুড়ে যায়। তবে যে নিজের জীবন বাজি রেখে প্রতিবেশীদের সাহায্য করেছিল, তাকেই হাসপাতালে নেয়ার জন্য গাড়ি দেননি কেউ। এমনকি খবর দেওয়ার পর অ্যাম্বুলেন্সও আসেনি। সারারাত দগ্ধ শরীর নিয়েই থাকতে হয় পরোপকারী প্রেমকান্তকে।

সারারাত হাসপাতালে নিতে না পারায় পরিবারের সদস্যরাও প্রেমকান্তের বাঁচার আশা ছেড়ে দিয়েছিলেন। পরদিন সকালে কোনোরকমে তাকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানেই বর্তমানে তার চিকিৎসা চলছে। তবে তার জীবন সঙ্কটাপন্ন।