advertisement
আপনি দেখছেন

গত শনিবার কাতারের রাজধানী দোহায় আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার ও শান্তি ফিরিয়ে আনতে তালবান ও যুক্তরাষ্ট্রের ঐতিহাসিক চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। আজ বুধবার সে চুক্তি অমান্য করে আফগানিস্তানের হেলমান্দ প্রদেশে তালেনদের ওপর বিমান হামলা চালিয়েছে মার্কিন বাহিনী। মার্কিন সামরিক বাহিনীর এক মুখপাত্রের টুইটের বরাতে এ তথ্য জানায় রয়টার্স।

us carries out first airstrike on taliban since doha deal

কর্নেল সানি লেগেট নামের ওই সামরিক মুখপাত্র টুইটে বলেন, তালেবান যোদ্ধারা আফগান সেনাদের চেকপয়েন্ট লক্ষ্য কয়েক দফা হামলা চালায়। সেসব হামলা প্রতিরোধ করতেই মার্কিন বিমান হামলা চালানো হয়। ওয়াশিংটন চায়, আফগানিস্তানে শান্তি ফিরে আসুক। তবে আফগান সেনাদের নিরাপত্তার স্বার্থে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে প্রস্তুত মার্কিন সেনারা।

তিনি আরো বলেন, তালেবান প্রতিনিধি দল আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আশ্বস্ত করেছে যে, তারা সহিংসতা ও হামলার পরিমাণ কমিয়ে আনবে। আমরা সে প্রতিশ্রুতি রক্ষা ও অহেতুক হামলা থেকে বিরত থাকার জন্য তাদের আহ্বান জানাচ্ছি।

জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্র-তালেবানদের মধ্যকার চুক্তিকে ঘিরে গত ১১ দিন আফগানিস্তানে সব রকম হামলা থেকে নিজেদের বিরত রেখেছিল মার্কিন বাহিনী। তালেবানদের পক্ষ থেকেও একই কাজ করা হচ্ছিল। কিন্তু গত সোমবার তারা আফগান সেনাদের বিরুদ্ধে নিজেদের সাধারণ অপারেশন পুনরায় শুরু করার সিদ্ধান্ত নেয়।

ওই ঘটনার পর মঙ্গলবার আফগান বাহিনীর চেকপোস্টে হামলা করে তালেবানরা। এতে ২০ আফগান সেনা নিহত হয়। হামলার পর তালেবানদের দায়ী করা হলেও বিষয়টি স্বীকার করেনি তারা।

এদিকে, বুধবার মার্কিনিদের হামলার পর আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বলেন, হেলমান্দ প্রদেশ ছাড়াও আফগানিস্তানের নয়টি জায়াগায় তালেবানদের সঙ্গে দেশটির সেনা সদস্যদের সংঘর্ষ হয়েছে। এরপর মার্কিন বাহিনী তালেবানদের প্রতিরোধে বিমান হামলা করেছে। এতে কোনো হাতাহত হয়েছে কি না তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

sheikh mujib 2020