advertisement
আপনি দেখছেন

নোভেল করোনাভাইরাসের উৎপত্তি চীনে হলেও সবচেয়ে ভয়াল থাবাটি পড়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা দুই লাখ ৭৭ হাজার ৫২২। যা বিশ্বের মধ্যে সর্বোচ্চ। মৃত্যু হয়েছে সাত হাজার ৪০৩ জনের। আর এ অবস্থার জন্য চীন থেকে আসা সাত লক্ষ মানুষকে দায়ী করছে যুক্তরাষ্ট্রের ট্রাভেল ডেটা।

new york airportনিউইয়র্ক এয়ারপোর্ট

ট্রাভেল ডেটা বলছে, করোনাভাইরাসের ক্রান্তিকাল গত ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে তিন দশমিক চার মিলিয়ন (৩৪ লক্ষ) মানুষ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করেছে। যার সিংহভাগ ছিলো চীন, ইতালি, স্পেন ও ব্রিটেনের মানুষ।

ডিসেম্বরে চীনে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আগেই সেখান থেকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। কিন্তু তার আগেই সেখান থেকে ৭ লাখ ৫৯ হাজার ৪৯৩ জন উত্তর আমেরিকার দেশটিতে প্রবেশ করে।

ইতালি থেকেও প্রায় ৩ লাখ ৪৩ হাজার ৪০২ জন মানুষ যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করেছে গত ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সময়ে। স্পেন থেকে আসা এ সংখ্যা ৪ লাখ ১৮ হাজার ৮৪৮ জন। সর্বোচ্চ সংখ্যক মানুষ এসেছে ব্রিটেন থেকে। সংখ্যাটি এক দশমিক নয় মিলিয়ন (১৯ লক্ষ)।

newyork city empty roadলকডাউনে খালি নিউইয়র্কের রাস্তা

যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অন্য দেশ থেকে আসা লোকজনের মধ্যে ঠিক কতজন করোনায় আক্রান্ত ছিলো তা নির্ণয় করা খুব কঠিন। তবে তাদের অনেকের দেহে ভাইরাসের কোনো লক্ষণই ছিলো না।

তারা আরো বলেন, যারা এসেছে তাদের বেশিরভাগই বড় বড় শহরে এসেছেন। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি গিয়েছে নিউইয়র্কে। ধারণা করা হচ্ছে তারা যুক্তরাষ্ট্রের অন্যান্য স্থানেও গিয়েছেন।

ট্রাভেল ডেটাতে আরো বলা হয়, জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত চীন থেকে ফিরে এসেছে ১৮ হাজার মার্কিনি। তাদের মধ্যমেও ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়তে পারে।