advertisement
আপনি দেখছেন

নব্বইয়ের দশকে উত্তরপ্রদেশের ভিখারু গ্রামে উত্থান তার। ২০০৬ সালে রাজনাথ সিং, ভারতের বর্তমান প্রতিরক্ষামন্ত্রী, যখন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী, তখন ঘটে এক ভয়ংকর ঘটনা। এক বিজেপি নেতাকে তাড়া করলে স্থানীয় শিবালি থানায় ঢুকে পড়েন তিনি। পেছনে পেছনে থানায় প্রবেশ করে সন্তোষ শুক্লা নামের ওই নেতাকে খুন করা করা হয়, তাও আবার ২১ জন পুলিশের সামনে। ওই ঘটনায় হওয়া মামলায়ও বেকসুর খালাস পেয়ে যায় সে, কারণ ২১ পুলিশ সদস্যের একজনও সাক্ষী হয়নি।

bikash dube india overturn carযেন বলিউডের কোনো থ্রিলারকেও হার মানায়

তার পর কেটে যায় ১৪ বছর। সময়ের পরিক্রমায় সেই পুলিশই তার বাহিনীর শিকার। কয়েকদিন আগে দুধর্ষ সেই খুনিকে গ্রেপ্তার করতে গিয়ে তার বাহিনীর সদস্যদের এলোপাথারি গুলিতে প্রাণ হারায় ৮ পুলিশ সদস্য। যে ঘটনা গোটা ভারতকে কাঁপিয়ে দেয়। তবে এবার আর শেষ রক্ষা হয়নি সেই সন্ত্রাসী বিকাশ দুবের।

গত ৩ জুলাইয়ে ঘটনা, খুনের আসামি বিকাশকে গ্রেপ্তার করতে একদল পুলিশ সদস্য উত্তরপ্রদেশের কানপুরে যায়। চতুর বিকাশ আগেই গাড়ি যাওয়ার রাস্তা বন্ধ করে দেয়। বাধ্য হয়ে পুলিশ সদস্যদের গাড়ি থেকে নেমে গ্রামে ঢুকতে হয়। কিন্তু গ্রামের মুখে ঢুকতেই ওপরে ও নিচ থেকে এলোপাথারি গুলি চালানো হয়। এতে মারা যায় ৮ পুলিশ সদস্য। এ সময়ের পুলিশের পাল্টা গুলিতে বিকাশের কয়েক সহযোগী নিহত হলেও সে চম্পট দেয়।

bikash dube india arrestedবিকাশ দুবেকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ

এর পর থেকেই হন্যে হয়ে বিকাশকে খুঁজছিল ভারতীয় পুলিশ। অবশেষে ঘটনার এক সপ্তাহ পর আজ শুক্রবার দেখা মেলে বিকাশের। কিন্তু বিশেষ কায়দায় ধরা পড়ে সে। পরে আদালতে নেওয়ার পথে এনকাউন্টারে মারা যায় সে। ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, তার মৃত্যুর ঘটনা যেন বলিউডের কোনো সাসপেন্স থ্রিলারকেও হার মানায়।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার মাস্ক পরে মহাকাল মন্দিরে পূজা দিতে যায় বিকাশ। মন্দিরে ফুলের মালা বিক্রি করছিলেন এমন একজন তাকে চিনে ফেলে। সে মন্দিরের নিরাপত্তায় থাকা কর্মীদের বিষয়টি অবহিত করে। এর পর নিরাপত্তাকর্মীরা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে তাকে গ্রেপ্তার করে।

আজ শুক্রবার সকালে বিকাশকে কানপুর আদালতে নিয়ে যাচ্ছিলো পুলিশ। কিন্তু মাঝ পথে বিকাশের গাড়িটি রাস্তার ওপর উল্টে যায়। সঙ্গে সঙ্গে দুধর্ষ কিলার বিকাশ দুবে এক পুলিশ কর্মীর কাছ থেকে অস্ত্র কেড়ে নিয়ে এলোপাথারি গুলি চালাতে থাকে। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। উভয়পক্ষের গোলাগুলির এক পর্যায়ে পুলিশের গুলিতে ঝাঁঝরা হয়ে যায় বিকাশের দেহ।

এর মাধ্যমে ভারতের দুর্ধর্ষ এক গ্যাংস্টারের জীবনের সমাপ্তি ঘটে। কিন্তু রয়ে গেছে তার স্ত্রী রিচা। কারণ খুন, জখম ও রাহাজানিসহ নানা অপরাধে সিদ্ধহস্ত বিকাশের দুস্কর্মের অন্যতম সঙ্গী এই রিচা।

sheikh mujib 2020