advertisement
আপনি দেখছেন

বিশ্বব্যাপী চলছে করোনাভাইরাসের মহামারি। এ থেকে বাঁচতে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের গবেষকরা দিনরাত কাজ করছেন একটি প্রতিষেধক আবিষ্কারের জন্য। এখনো কার্যকর কোনো ভ্যাকসিন আবিষ্কার সম্ভব না হলেও বেশ কয়েকটি গবেষণা বেশ এগিয়ে রয়েছে। সংশ্লিষ্টরা প্রত্যাশা করছেন, চলতি বছরের শেষ নাগাদ ভ্যাকসিন বাজারে আসতে পারে।

bill gates vaccineবিল গেটস

অবস্থা যখন এই, তখন বিশ্বের ধনী রাষ্ট্র ও নামিদামি কোম্পানিগুলো বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার খরচ করে ভ্যাকসিনের আগাম বুকিং দিচ্ছে। ফলে আশঙ্কা করা হচ্ছে যে, ভ্যাকসিন বাজারে আনা সম্ভব হলেও হয়তো সত্যিকার অর্থেই যাদের প্রয়োজন তারাই পাবেই না। কারণ অন্যরা তা স্টক করবে।

বিষয়টি নিয়ে সতর্কতা উচ্চারণ করেছেন মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা মার্কিন ধনকুবের বিল গেটস। তিনি মনে করছেন, বাজারের হাতে করোনার ওষুধ ও ভ্যাকসিন ছেড়ে দেওয়া ঠিক হবে না। তিনি সতর্ক করে বলেছেন, স্বাভাবিক নিয়মে বাজারের সর্বোচ্চ দরদাতার হাতে ভ্যাকসিন চলে গেলে সত্যিকারের প্রয়োজন যাদের, তারা অনেকেই ভ্যাকসিন পাবেন না।

ইন্টারন্যাশনাল এইডস সোসাইটি আয়োজিত কোভিড-১৯ বিষয়ক ভার্চুয়াল কনফারেন্সে অংশ নিয়ে বিল গেটস এসব কথা বলেন।

corona us vaccineপ্রতীকী ছবি

তিনি হুঁশিয়ার করে বলেন, ভ্যাকসিনের প্রয়োজন যাদের সবচেয়ে বেশি, তাদের উপেক্ষা করে যদি তা সর্বোচ্চ দরদাতাদের কাছে চলে যায়, তাহলে আমরা দীর্ঘ ও প্রাণঘাতী এক মহামারি দেখতে পাবো। যা হবে অন্যায্য কাজ। তাই সমতার ভিত্তিতে ভ্যাকসিনের বণ্টন নিশ্চিত করতে হবে, আর এ জন্য প্রয়োজন ভালো নেতৃত্ব। বাজারের ওপর নির্ভর করলে তা ভুল করা হবে।

এক্ষেত্রে বিল গেটস এইচআইভি বা এইডসের বিরুদ্ধে একত্রে লড়াই করার প্রক্রিয়া অনুসরণের পরামর্শ দেন। তিনি বলেন, যদিও এইচআইভির পূণাঙ্গ ভ্যাকসিন আজও পাওয়া যায়নি, কিন্তু দুই দশক আগে যখন এর বিরুদ্ধে লড়াই শুরু হয় তখন সব দেশ ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে আসা আফ্রিকাসহ অধিকাংশ দেশে ওষুধ পৌঁছানো সম্ভব হয়েছে।

বিশ্বের অন্যতম এ ধনকুবের বলেন, করোনার ভ্যাকসিন বণ্টনের ক্ষেত্রে একই মডেল ব্যবহার করা যেতে পারে। তাতে কমবেশি সবাই ভ্যাকসিন পাবে এবং পরিস্থিতি দ্রুত সামাল দেওয়া যাবে।

ইউরোপিয়ান কমিশন ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আগেই এ বিষয়ে সতর্কতা উচ্চারণ করেছে। তারা বলেছে, ভ্যাকসিন পাওয়া গেলে তা নিয়ে অসুস্থ প্রতিযোগিতা তৈরি হতে পারে। অবশ্য তার আগেই কিছু মার্কিন কর্মকর্তা জানান দেন যে, ভ্যাকসিন পাওয়া গেলে তারা যুক্তরাষ্ট্রের জনগণকেই অগ্রাধিকার দেবেন।

sheikh mujib 2020