advertisement
আপনি দেখছেন

গভীর কোমায় আচ্ছন্ন হয়ে রয়েছেন সম্প্রতি মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার হওয়া ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি। এখনও তার শারীরিক অবস্থার তেমন কোনো উন্নতি হয়নি। আজ বৃহস্পতিবার সকলে এসব তথ্য জানায় দিল্লির ক্যান্টনমেন্ট রিসার্চ অ্যান্ড রেফারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এখানেই চিকিৎসাধীন আছেন প্রণব মুখার্জি।

pronob mukharjee 1ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি- ফাইল ছবি

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস জানায়, আজ সকলে প্রণব মুখার্জির মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ে যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে। তবে কিছুক্ষণ পর তার পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এটি একটি গুজব ও মিথ্যা সংবাদ।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে প্রণব মুখার্জির ছেলে অভিজিৎ মুখার্জি জানান, তার বাবা এখনও জীবিত আছেন। তিনি হেমোডাইামিক্যালভাবে স্থিতিশীল আছেন। অর্থাৎ তার হৃদযন্ত্র এখনো কাজ করছে। এছাড়া শরীরে রক্ত সঞ্চালন ও রক্তচাপ স্থিতিশীল আছে।

মেয়ে শর্মিষ্ঠা মুখার্জিও জানান, তার বাবাকে নিয়ে গুজব ছড়িয়েছে। কেউ যেনো এ ধরনের মিথ্যা খবর প্রচার না করে।

পাশপাশি তিনি সকলের প্রতি বিশেষ করে গণমাধ্যমের প্রতি অনুরোধ করে বলেন, দয়া করে কেউ এখন আমাকে ফোন করবেন না। কারণ হাসপাতাল থেকে যেকোনো সময় জরুরি প্রয়োজনে ফোন দিতে পারে। তাই ফোন ফাঁকা রাখা দরকার।

army hospital resarch and refarelদিল্লির সেনা রিসার্চ অ্যান্ড রেফারেল হাসপাতাল- ফাইল ছবি

সকালে প্রণব মুখার্জিকে নিয়ে গুজব ছড়ানোর পর হাসপাতালের পক্ষ থেকেও তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে বুলেটিন দেওয়া হয়। এতে বলা হয়, সাবেক এ রাষ্ট্রপতির শারীরিক অবস্থা এখনও অপরিবর্তিত আছে। এখনও আশাজনক কোনো উন্নতি হয়নি। বর্তমানে তিনি হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভেন্টিলেশন সাপোর্টে গভীর কোমায় আছেন। তবে তার শরীরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মাপকাঠি (রক্তচাপ, হৃদযন্ত্র ইত্যাদি) স্থিতিশীল আছে।

এর আগে ৮৪ বছর বয়সী এ রাষ্ট্রপতির পরিবারের বরাত দিয়ে গণমাধ্যমগুলো জানায়, গত রোববার রাতে দিল্লি বাসভবনের বাথরুমে পড়ে যান প্রণব মুখার্জি। এতে তিনি মাথায় ও হাতে আঘাত পান। পরে ওইদিন রাতেই তাকে বাসভবনে প্রাথমিক চিকিৎসা ও প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র দেন চিকিৎসক। রাতে নিজের সরকারি বাসভবনেই ঘুমান সাবেক রাষ্ট্রপতি। কিন্তু সকলে ঘুম থেকে ওঠার পর তার ডান হাত নাড়তে সমস্যা হচ্ছিল। পাশাপাশি শরীরও কিছুটা অবশ লাগছে বলে জানান তিনি।

পরে সোমবার সকালেই প্রণব মুখার্জিকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখা যায়, মাথায় আঘাত লাগার কারণে তার মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ হয়েছে। পাশাপাশি মস্তিষ্কের কিছু সেলও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাই পরিবারের অনুমতিক্রমে ওইদিন রাত ৮টার দিকে তার মস্তিষ্কে সফল অস্ত্রোপচার করেন চিকিৎসকরা। অস্ত্রোপচারের আগে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়। তখনই তার করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়।

sheikh mujib 2020