advertisement
আপনি দেখছেন

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্ততায় ইসরায়েলের সঙ্গে শান্তি চুক্তি করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। এতে করে দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপিত হবে। ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর মতে, এই চুক্তির ফলে মধ্যপ্রাচ্য উন্নতির দিকে এগিয়ে যাবে। আরো অনেক মুসলিম রাষ্ট্র ইসরায়েলের সঙ্গে চুক্তি করতে এগিয়ে আসবে।

benjamin netaniyahu breifing about israel annexation plans02ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু

জানা যায়, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নেতৃত্বে হোয়াইট হাউসে শিগগির আরব আমিরাত ও ইসরায়েলের প্রতিনিধিরা চুক্তি স্বাক্ষর করবেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার ইসরায়েল ও আমিরাতের চুক্তিকে ‘ঐতিহাসিক’ আখ্যা দিয়ে এক টুইট করেন ট্রাম্প। সেখানে তিনি বলেন, ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু ও আবু ধাবির ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ আল নাহিয়ান আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠা হবে ঐতিহাসিক এই চুক্তির কারণে । এর মাধ্যমে পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি পরিকল্পনা স্থগিত হলো।

usa uae israelআল নাহিয়ান, ডোনাল্ড ট্রাম্প (মাঝে) ও নেতানিয়াহু

ট্রাম্পের টুইটের পর ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী এক টুইটে তাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ঐতিহাসিক দিন।

নতুন এই চুক্তির তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা করেছে ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন, হামাসের নেতারা। সংগঠনটির মুখপাত্র ফাউজি বারহুম বলেন, আমিরাত মূলত এই সিদ্ধান্ত নিয়ে ফিলিস্তিনিদের পিঠে ছুরি মেরেছে। চুক্তিতে ফিলিস্তিনের কোনো লাভ হবে না। দখলদারিত্ব ও সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন করে তাদের এই সমঝোতা।

sheikh mujib 2020