advertisement
আপনি দেখছেন

ইতোমধ্যে ভ্যাকসিন ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে প্রতিদ্বন্দ্বী দেশ রাশিয়া। যদিও এর চূড়ান্ত ট্রায়াল এখনো সম্পন্ন হয়নি। তাছাড়া সামনেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। তাই বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোলান্ড ট্রাম্পের আর তড় সইছে না। তিনি চান নির্বাচনের আগেই ভ্যাকসিনের ঘোষণা দিয়ে একটি চমক দেখাতে। তাই ধারণা করা হচ্ছে, আগামী নভেম্বরের শুরুতেই ভ্যাকসিন বাজারে ছাড়ার ঘোষণা দিতে পারেন ট্রাম্প।

us president donald trump 6ডোনাল্ড ট্রাম্প

মার্কিন গণমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই মুহূর্তে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র করোনা ও অর্থনীতি দুই দিক থেকেই বেশ চাপে রয়েছে। আর ভ্যাকসিন তৈরির দৌড়ে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে দেশটির সংস্থা মডার্না ও ফাইজার আইএনসি। তাই আর দেরি করতে চান না ডোলান্ড ট্রাম্প। নির্বাচনের আগে তড়িঘড়ি করোনার ভ্যাকসিন এনে সবাইকে চমকে দিতে চান।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগামী ১ নভেম্বরেই দেশটিতে করোনার টিকা বণ্টন শুরু করে দিতে চান ট্রাম্প। সেজন্য বিভিন্ন রাজ্যের সরকারকে প্রস্তুত থাকতেও নির্দেশ দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

report wall street journalওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদন

জানা গেছে, গতকাল বুধবার এক ভার্চুয়াল কনফারেন্সে হোয়াইট হাউস থেকে ট্রাম্প রাজ্যগুলোকে জানিয়ে দিয়েছেন যে, নভেম্বরের শুরুতেই ভ্যাকসিন আসবে। এ জন্য রাজ্যগুলোকে ভ্যাকসিন বিতরণের চূড়ান্ত প্রস্তুতি ও পরিকল্পনা করে ফেলতে হবে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, করোনার ভ্যাকসিন কীভাবে বিতরণ করা হবে, সে ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকারকেই পরিকল্পনা করতে হবে।

মার্কিন সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) জানিয়েছে, করোনার ভ্যাকসিন আগে কাদের দেওয়া হবে, কী পদ্ধতিতে বিতরণ হবে, এসব বিষয় নিয়ে যাবতীয় তথ্য উল্লেখ করে ভ্যাকসিনের জন্য রাজ্যগুলোকে আবেদন করতে হবে। আর সেই আবেদনের ভিত্তিতেই তাদের জন্য আলাদা আলাদাভাবে ভ্যাকসিন বরাদ্দ করা হবে।

মার্কিন গণমাধ্যমগুলো বলছে, করোনার ভ্যাকসিন তৈরির ক্ষেত্রে শেষ ধাপে রয়েছে মার্কিন সংস্থা মডার্না আইএনসি এবং ফাইজার আইএনসি। মার্কিন সরকারের অর্থায়নে গবেষণার তৃতীয় পর্যায়ে ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবীর ওপর ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত পরীক্ষা শুরু করেছে মডার্না। অন্যদিকে, বিশ্বের বহু দেশে চলছে ফাইজারের ভ্যাকসিনের ট্রায়াল।

দুটি ভ্যাকসিনই ট্রায়ালের একেবারে শেষ পর্যায়ে রয়েছে। তবে এটা স্পষ্ট নয় যে, নভেম্বরের আগে এই দুটি ভ্যাকসিনের ট্রায়াল শেষ হবে কি না। অবশ্য সূত্র বলছে, ট্রায়াল শেষ না হলেও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নভেম্বরের শুরুতেই ভ্যাকসিনের ঘোষণা দিতে পারেন। আগামী ৩ নভেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে।

sheikh mujib 2020