advertisement
আপনি দেখছেন

এক দিনে সবচেয়ে বেশি লোককে ভ্যাকসিন দেওয়ার রেকর্ড গড়েছে যুক্তরাজ্য। সরকারি তথ্য মতে, দেশটিতে শনিবার পর্যন্ত মোট ৮,৯৭৭,৩২৯ জন ব্যক্তিকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে শুধু শনিবারই ভ্যাকসিন পেয়েছেন ৫৯৮,৩৮৯ জন ব্যক্তি— যা এক দিনের সর্বোচ্চ।

uk vaccinate most people in a single day

যুক্তরাজ্য এখন পর্যন্ত যতো মানুষকে ভ্যাকসিন দিয়েছে, তাদের মধ্যে দ্বিতীয় শট নিয়েছেন ৪৯১,০৫৩ জন। দ্বিতীয় শট নেওয়া ব্যক্তিদের আর ভ্যাকসিন নিতে হবে না। আর যারা একটি শট নিয়েছেন, তাদের আরো একটি নিতে হবে।

দেশটির স্বাস্থ্য সচিব ম্যাট হ্যানকক বলেন, “আমরা অভিভূত। প্রতিটি ভ্যাকসিন আমাদের স্বাভাবিক পরিস্থিতির দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।”

এক দিকে যখন অনেক লোককে ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে, অন্য দিকে রোববার দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৫৮৭ জন। এর মাধ্যমে যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছালো ১০৬,১৫৮ জনে।

টুইটারে পোস্ট করা ভিডিওতে হ্যানকক বলেন, “যারা এটি সম্ভবপর করতে কাজ করেছেন, সবার কাছে আমি কৃতজ্ঞ।” এবং তিনি আরো বলেন, ৭৫ থেকে ৭৯ বছর বয়সী ব্যক্তিদের তিন ভাগের এক ভাগকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়ে গেছে এবং যাদের বয়স ৮০ বা এর বেশি, তাদের পাঁচ ভাগের চার ভাগকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে।

সরকারের বিজ্ঞানবিষয়ক উপদেষ্টা জেরেমি ফেরার সংবাদ মাধ্যমকে বলেন যে, এটি একটি দারুণ অর্জন। তিনি এতো অল্প সময়ে প্রায় এক মিলিয়ন লোককে ভ্যাকসিন দেওয়ার বিষয়টির প্রশংসা করেন।

এর আগে স্বাস্থ্য সচিব একটি সুখী গ্রীষ্মের পূর্বাভাস দিয়েছিলেন। কিন্তু একই সাথে তিনি বলেছিলেন যে, ভ্যাকসিন দেওয়া সম্পূর্ণ হওয়া পর্যন্ত আরো কয়েক মাস সবাইকে অনেক কঠিন সময় পার করতে হবে।

ইংল্যান্ডের জনস্বাস্থ্য কোভিড পরিকল্পনার প্রধান সুসান হোপকিনস বলেন, লকডাউন এখনো চলতে থাকবে তবে খুব ধীরে এবং সাবধানে। তিনি বলেন, “এখনো সতর্ক থাকা বুদ্ধিমানের কাজ হবে। আগে সবাইকে ভ্যাকসিন দিতে হবে।”

ইংল্যান্ডের বর্তমান লকডাউন মার্চ মাসের আট তারিখ পর্যন্ত চলতে থাকবে। এরপর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেবে। এখন পর্যন্ত ওয়েলস, স্কটল্যান্ড এবং নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডেও কড়া লকডাউন চলছে।