advertisement
আপনি দেখছেন

সম্প্রতি মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকদের কঠোরভাবে দমন করতে নতুন আইন প্রণয়ন করেছে ফ্রান্স সরকার। ওই আইনের প্রতিবাদ করেছিলেন পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি। এ জন্য ফ্রান্সে থাকা পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে প্যারিস।

pak president arif alviপাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি

ফ্রান্সে ওই আইন পাসের পর গত শনিবার পাক প্রেসিডেন্ট বলেন, আপনি যখন এমন আইন দেখতে পাবেন যা বৃহত্তর সম্প্রদায় থেকে কিছু মানুষকে আলাদা বা বিচ্ছিন্ন করছে, তখন সেটি একটি বিপজ্জনক নজির স্থাপন করে।

পাকিস্তানি গণমাধ্যম ডনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সম্প্রতি ফ্রান্সে বিশ্বনবীর ব্যঙচিত্র প্রকাশের বিষয়টি উল্লেখ করে আরিফ আলভি বলেন, কেউ যখন মহানবীকে অপমান করবেন, তার অর্থ হলো তিনি সমস্ত মুসলিমকে অপমান করলেন।

মুসলিম বিরোধী আইন থেকে বেরিয়ে আসার জন্য এ সময় ফরাসি রাজনৈতিক নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান পাক প্রেসিডেন্ট।

imanuel macron backtractsফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোন

জানা যায়, ফ্রান্সে পাকিস্তানের কোনো রাষ্ট্রদূত নেই। তবে দেশটিতে পাকিস্তানের চার্জ ডি'অ্যাপেয়ার্স আছে। গত সোমবার তাকে ডেকেই প্রেসিডেন্ট আলভির বক্তব্যের প্রতিবাদ জানায় ফ্রান্সের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। নতুন বিলে কোনো বৈষম্য নেই বলেও এ সময় জানানো হয়।

উল্লেখ্য, বিশ্বনবীকে নিয়ে গত বছরের অক্টোবরে ব্যঙচিত্র প্রকাশ করে ফ্রান্সের এক শিক্ষক। সে সময় ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাঁক্রোন ওই শিক্ষকের পক্ষাবলম্বন করেন। সে সময়ও বিশ্বের অন্যান্য মুসলিম দেশের মতো তীব্র প্রতিবাদ জানায় পাকিস্তান।

sheikh mujib 2020