advertisement
আপনি দেখছেন

মরণঘাতী করোনাভাইরাসের টিকা (ভ্যাকসিন) এখন থেকে শিশু-কিশোররাও নিতে পারবে। মার্কিন কোম্পানি ফাইজার ও জার্মান কোম্পানি বায়োএনটেক যৌথভাবে উদ্ভাবিত ও উৎপাদিত করোনার টিকা ১২ থেকে ১৫ বছর বয়সীদের প্রয়োগের ব্যাপারে অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ)।

us vacc age 12 15 years

ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, এর আগে যুক্তরাষ্ট্রে ১৬ বছর থেকে বেশি বয়সীদের করোনার টিকা দেওয়া হচ্ছিল। তবে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে দেশটিতে ১২ থেকে ১৫ বছর বয়সীদেরও টিকা প্রয়োগ শুরু হবে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি ১২ বছর বয়সীদের ফাইজারের টিকা দেওয়া শুরু করে কানাডা। এরপর দ্বিতীয় দেশ হিসেবে শিশু-কিশোরদের ফাইজারের টিকাটি প্রয়োগের সিদ্ধান্ত নিলো যুক্তরাষ্ট্র।

করোনার চলমান মহামারি মোকাবেলায় এই সিদ্ধান্তকে একটি তাৎপর্যপূর্ণ পদক্ষেপ হিসেবে উল্লেখ করেছে এফডিএ। আর সংস্থাটির কমিশনার ডা. জ্যানেট উডকক বলেছেন, স্বাভাবিক পরিস্থিতির কাছাকাছি যাওয়ার অনুভূতি তৈরি এবং মহামারির অবসানের লক্ষ্যেই এই পদক্ষেপ।

pfizer vaccine cov 19

মার্কিন সরকারের তথ্য বলছে, এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় ২৬ কোটি ডোজ কোভিড-১৯ এর টিকা প্রয়োগ করা হয়েছে। তবে সাম্প্রতিক সময়ে টিকার চাহিদা কমে যাওয়ায় বেশি পরিমাণ টিকা প্রয়োগের লক্ষ্যেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

জ্যানেট উডকক বলছেন, যেসব তথ্য পাওয়া গেছে তার সব কিছু ব্যাপকভাবে যাচাই-বাছাইয়ের পরই শিশু-কিশোরদের টিকা প্রয়োগের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, এর আগে গত সপ্তাহে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এক ঘোষণায় জানান, তার সরকার আগামী ৪ জুলাইয়ের মধ্যে অন্তত ৭০ শতাংশ জনগোষ্ঠীকে টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা করছে। তার পরই শিশু-কিশোরদের টিকা দেওয়ার খবর পাওয়া গেল।