advertisement
আপনি দেখছেন

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন ৩০টি দেশের সামরিক জোট ন্যাটো কঠোর অবস্থান নিয়েছে রাশিয়া ও চীনের বিরুদ্ধে। গতকাল সোমবার (১৪ জুন) বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে সংস্থাটির শীর্ষ সম্মেলন এমন বার্তার মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হয়।

us vs russia chinaযুক্তরাষ্ট্র বনাম রাশিয়া ও চীনের পতাকা

ভয়েস অব আমেরিকা জানায়, ন্যাটো জোটের ব্যাপারে দৃঢ় প্রত্যয় পুনর্ব্যক্ত করেন সদস্য দেশগুলোর নেতারা। এ সময় রাশিয়া ও চীনকে ‘বিধিভিত্তিক আন্তর্জাতিক শৃঙ্খলার জন্য চ্যালেঞ্জ’ হিসেবে উল্লেখ করেন তারা।

দেশ দুটির ক্রমবর্ধমান প্রভাবের কারণে দিনকে দিন নিরাপত্তাজনিত জটিলতায় পড়ছে যুক্তরাষ্ট্রের বলয়ে থাকা পশ্চিমারা। এই হুমকি মোকাবেলায় ন্যাটোর আন্তঃসম্পর্ক বাড়িয়ে একটি নতুন অধ্যায়ের সূচনা করার ব্যাপারে একমত হয়েছে সদস্য দেশগুলো।

nato 2021ন্যাটে সম্মেলন

এক্ষেত্রে ‘ন্যাটো ২০৩০’ নামে একটি কৌশলগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা ঘোষণা করা হয়েছে। এটিকে বৈশ্বিক প্রতিযোগিতা এবং অপ্রত্যাশিত হুমকির বিষয়ে দিক-নির্দেশনা হিসেবে অভিহিত করা হয়।

এই ব্যবস্থাপনা কৌশলে রাশিয়া ও চীন ছাড়াও নতুন হুমকি হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে বেশ কয়েকটি ইস্যু ও ধারণাকে। এর মধ্যে রয়েছে ‘সন্ত্রাসবাদের নৃশংস রূপ’, ‘চলমান অস্থিতিশীলতা’, ‘ক্রমবর্ধমান সাইবার ও হাইব্রিড হুমকি’, নতুন প্রযুক্তি, মহামারি এবং জলবায়ু পরিবর্তন ইত্যাদি।

nato 2021 1ন্যাটো জোট

এদিকে পশ্চিমাদের আনা সব অভিযোগ অস্বীকার করে মস্কো ও বেইজিং বলছে, তাদের উত্থানকে ঠেকাতে মরিয়া হয়ে উঠেপড়ে লেগেছে ওয়াশিংটন। তারা গোটা বিশ্বকে একাই নিয়ন্ত্রণ করতে উত্তেজনা তৈরি করছে।