advertisement
আপনি দেখছেন

পুলিশ-স্বাধীনতাকামীদের সংঘর্ষের জেরে ভারত অধিকৃত কাশ্মির থেকে পালিয়ে যাচ্ছেন শত শত হিন্দু ধর্মাবলম্বী। ভারতীয় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কর্তৃক গত কয়েকদিনে কয়েক হাজার কাশ্মিরিকে গ্রেপ্তার এবং বেশ কয়েকজন হতাহত হওয়ার প্রেক্ষিতে এ অঞ্চলের মানুষজনের মধ্যে ভীতি ছড়িয়ে পড়ে।

an indian paramilitary soldier patrols in srinagarশ্রীনগরে টহল দিচ্ছে আধাসামরিক বাহিনীর একজন সদস্য

আরব নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, কাশ্মিরে গতকাল মঙ্গলবার ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে কমপক্ষে পাঁচ ব্যক্তি নিহত হয়। এর আগে গত সপ্তাহে তিনজন হিন্দু এবং একজন শিখ নিহত হয়। এর প্রেক্ষিতে সেখানে পুলিশি অভিযান বৃদ্ধি পায়। এর মধ্যেই সোমবার কমপক্ষে পাঁচ ভারতীয় সেনা এবং দুই স্বাধীনতাকামী বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়। মঙ্গলবার দক্ষিণ কাশ্মিরে দুটি পৃথক বন্দুকযুদ্ধে সেনারা পাঁচ সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে হত্যা করে। পুলিশ দাবি করছে, নিহতদের একজন এক হিন্দু ব্যক্তিকে হত্যার সাথে যুক্ত ছিল।

কাশ্মির উপত্যকার পুলিশ প্রধান বিজয় কুমার বলেন, নিহত ওই পাঁচজন দ্য রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্টের (টিআরএফ) সদস্য। ভারতীয় কর্তৃপক্ষের ধারণামতে, সংগঠনটি পাকিস্তানের সমর্থনপুষ্ট। কিন্তু ইসলামাবাদ কাশ্মিরের বিদ্রোহকে কোনো ধরনের সমর্থন দেয়ার কথা পুরোপুরি অস্বীকার করে বলেছে, তারা কাশ্মিরি জনগণের শুধু কূটনৈতিক ও নৈতিক সহায়তা দিয়ে থাকে।

kashmir 4কাশ্মিরের সৌন্দর্য এবং পাহারারত সেনা

সাম্প্রতিক এ সহিংসতায় শত শত কাশ্মিরি হিন্দু কাশ্মির উপত্যকা থেকে পালিয়ে যাচ্ছে। ১৯৯০ সালে দেশত্যাগের পর ফেডারেল সরকারের বিশেষ স্কিমের মাধ্যমে যারা ফিরে এসেছিলেন তারাও এ সময় পালিয়ে যান।

শ্রীনগরের হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতা সঞ্জয় টিকু বলেন, আমাদের প্রচুর লোক এ পরিস্থিতিতে এলাকা ছেড়ে চলে গেছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত আমরা ফিরে যাবো না।