advertisement
আপনি পড়ছেন

করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন রোধে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন দেশটির নাগরিকদের ভ্রমণে কড়াকড়ি আরোপ করেছেন। কারণ যুক্তরাষ্ট্রে ইতোমধ্যে ওমিক্রণে আক্রান্তদের শনাক্ত করা হয়েছে। তবে বাইডেনের পরিকল্পনায় শাটডাউন বা লকডাউন দেওয়ার চিন্তা নেই। বিবিসির খবর।

omicron as variant of concernওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট

খবরে বলা হচ্ছে, ক্যালিফোর্নিয়া, কলোরাডো, মিনেসোটা, নিউ ইয়র্ক এবং হাওয়াইতে ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে। কর্মকর্তারা বলছেন, যার মাধ্যমে ওমিক্রন ছড়িয়েছে তার সাম্প্রতিক ভ্রমণের ইতিহাস নেই। স্থানীয় স্বাস্থ্য আধিকারিকরা আক্রান্তদের হালকা লক্ষণের কথা জানিয়েছেন।

ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট এখন পর্যন্ত ৩০ দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। তবে এটিতে ভ্যাকসিন কাজ করবে কি-না, সে ব্যাপারে এখনও স্পষ্ট কিছু জানাতে পারেননি স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। বাইডেন নির্দেশনা জারি করেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণের আগে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে করোনা টেস্ট করাতে হবে। বিমান, ট্রেন এবং বাসে মাস্কের ব্যবহার মার্চ পর্যন্ত বাধ্যতামূলক থাকবে।

biden 2 1জো বাইডেন

বেসরকারি বীমা কোম্পানি, স্বাস্থ্যকেন্দ্র এবং গ্রামীণ ক্লিনিকের মাধ্যমে লাখ লাখ মানুষকে বিনামূল্যে বাড়িতে করোনা পরীক্ষা করার চেষ্টা করবে যুক্তরাষ্ট্র। এছাড়া শীতের মাসগুলোর জন্য প্রাপ্তবয়স্কদের বুস্টার ভ্যাকসিন পেতে উৎসাহিত করা হবে।

খবর বলছে, ৪০ মিলিয়নেরও বেশি আমেরিকান তাদের বুস্টার ডোজ পেয়েছে। প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেছেন, আরও প্রায় ১০০ মিলিয়ন নাগরিক বুস্টার ডোজ গ্রহণের যোগ্য। শিশু ও কিশোর-কিশোরীদের মধ্যে টিকাদানের হার বাড়াতে দেশজুড়ে শত শত পারিবারিক টিকাদান ক্লিনিক স্থাপন করা হবে।

দক্ষিণ আফ্রিকাসহ আটটি দেশে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, এই ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা ওমিক্রন বিষয়ে জানা ও তা রোধ করার পন্থা অবলম্বনের সময় দেবে। বাইডেন করোনা টেস্টের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। তার দেওয়া নতুন নির্দেশনা প্রমাণ করে যুক্তরাষ্ট্রকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসতে আরও সময় লাগবে।