advertisement
আপনি পড়ছেন

মেক্সিকান অভিবাসন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তারা দেশের মধ্যাঞ্চলে একটি ট্রাকের ট্রেলারে ২১০ জন অভিবাসীকে বস্তাবন্দি অবস্থায় উদ্ধার করেছে। ন্যাশনাল মাইগ্রেশন ইনস্টিটিউট জানিয়েছে, গতকাল শুক্রবার পুয়েবলা রাজ্যের একটি চেকপয়েন্টে নির্দেশিত ট্রাকটি থামতে ব্যর্থ হয়েছিল নিরাপত্তাকর্মীরা। পরে তাড়া করে টেকামাচালকো শহরের কাছে নিয়ে আটক করা হয়। ওয়াশিংটন পোস্ট।

dfsdfsdfমেক্সিকোতে ২১০ অভিবাসী উদ্ধার

খবরে বলা হচ্ছে, যখন ট্রাকের ঝাপি খোলা হয় তখন দেখা যায়, কুশন এবং ঘরে তৈরি ফ্যানের বস্তার মধ্যে মহিলা, পুরুষ এবং শিশুরা চরম অসহায় অবস্থায় রয়েছে। ট্রাকের চালককে আটক করা হয়েছে। এর আগে অক্টোবর মাসে পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য ভেরাক্রুজে কর্তৃপক্ষ দুটি ট্রাকে ৬৫২ অভিবাসীকে খুঁজে পাওয়ার দুই সপ্তাহ পরে এ ঘটনা ঘটল।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদনে বলা হয়, সীমান্ত কর্মকর্তারা অপরাধপ্রবণ মেক্সিকান রাজ্য তামাউলিপাসে তিনটি ট্রাক থামায়। ট্রাকটিতে সিল করা পাত্রের ভেতর থেকে মানুষের আওয়াজ শোনা যাচ্ছিল। সেখান থেকে ৬৫২ অভিবাসীকে উদ্ধার করা হয়।

mexico borderমেক্সিকো বর্ডার

অবৈধ পাচারের শিকার এসব অভিবাসী বেশিরভাগই গুয়াতামালা থেকে আসা। এক্স-রে করার পর ট্রাক দুটি থেকে তাদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়। তার আগে দুই ট্রাকে কী আছে তা বোঝা যায়নি।

তামাউলিপাসের মুখপাত্র লুইস আলবার্তো রদ্রিগেজ দ্য জার্নালকে বলেছেন, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এরকম কোনো নজির নেই, যতদূর আমি মনে করতে পারি। পাচারের শিকার বাচ্চারা শান্ত। তারা দৃশ্যত পরিস্থিতি সম্পর্কে কিংবা কষ্টের যাত্রা সম্পর্কে অবগত নয়।

মেক্সিকো সীমান্তে এভাবে বছরের পর বছর মানবপাচার চলছে। প্রায়ই অভিবাসীদের উদ্ধার করা হলেও আদম ব্যবসায়ীদের শক্তিশালী গ্রুপ এই সীমান্তে বরাবরই সক্রিয়। এজন্য কোনোভাবেই মানবপাচার রুখে দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।