advertisement
আপনি পড়ছেন

ভারতে ফের ভয়াবহ আকার ধারণ করল প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। দেশটির দুটি রাজ্যে তথ্য সংশোধনের পর রোববার ভাইরাসটিতে একলাফে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৭৯৬ জনে। এ ছাড়া ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে বেড়েছে সংক্রমণের সংখ্যাও। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এ তথ্য প্রকাশ করেছে ভারতীয় গণমাধ্যম।

india daily deth cv increasedভারতে ফের ভয়াবহ করোনা, ২৭৯৬ জনের মৃত্যু, ছবি- এনডিটিভি

খবরে বলা হয়েছে, ভারতের বিহার ও কেরালা রাজ্য করোনায় মৃত্যুর তথ্য সংশোধনের পর গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মৃতের সংখ্যা একলাফে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৭৯৬ জনে। এর মধ্যে শুধু বিহার রাজ্যেই মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৪২৬ জনের। অপরদিকে, কেরালায় ২৬৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের জরিপ বলছে, তথ্য সংশোধনের পর ২৪ ঘণ্টায় ভারতে মৃত্যুর যে সংখ্যা দাঁড়িয়েছে, তা একদিনে মৃত্যুর ক্ষেত্রে গত ২১ জুলাইয়ের পর সর্বোচ্চ। এর আগে চলতি বছরের মার্চ ও এপ্রিলে দেশটিতে ব্যাপক বিপর্যয় চালিয়েছে করোনা। ওই সময় প্রতিদিন হাজার হাজার মৃত্যু এবং লাখ লাখ শনাক্ত রোগী দেখেছে ভারত।

প্রসঙ্গত, ভারতের রাজ্যগুলো সম্প্রতি নথিভুক্ত করা হয়নি এমন মৃত্যুর সংখ্যা করোনায় প্রাণহানির তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করতে শুরু করেছে। তবে দেশটির কিছু বিশেষজ্ঞ বলছেন, ভারতে এ পর্যন্ত সরকারিভাবে করোনায় ৪ লাখ ৭৩ হাজার ৩২৬ জনের প্রাণহানির তথ্য জানানো হয়েছে। কিন্তু বাস্তবে এই সংখ্যা আরো অনেক বেশি হবে। এর আগে মার্কিন একটি সংবাদ মাধ্যমও তাদের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানিয়েছিল।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যাও বেড়েছে। শনিবারের, ৪ ডিসেম্বর, তুলনায় রোববার, ৫ ডিসেম্বর, নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ৩ শতাংশ বেশি। ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় রোববার ২৪ ঘণ্টার যে বুলেটিন প্রকাশ করেছে সে অনুযায়ী, দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন আক্রান্ত হয়েছেন ৮ হাজার ৮৯৫ জন। আগের দিন এই সংখ্যা ছিল ৮ হাজার ৬০৩।

অপরদিকে, করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট বা ধরন ওমিক্রন নিয়ে নতুন করে বিশ্বব্যাপী যে তোলপাড় শুরু হয়েছে, সেই ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত রোগীও ভারতে শনাক্ত হয়েছে। ইতোমধ্যেই দেশটিতে ৪ জনের দেহে ওমিক্রনের উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে দেশটির কর্নাটক রাজ্যে ২ জন এবং গুজরাট ও মুম্বাইয়ে একজন করে শনাক্ত করা হয়েছে।