advertisement
আপনি পড়ছেন

সদ্য বিদায়ী বছরের মার্চে ইরানের সঙ্গে চীনের ঐতিহাসিক ২৫ বছর মেয়াদি ব্যাপকভিত্তিক সহযোগিতা চুক্তি স্বাক্ষর হয়। সেটি চলতি বছরের ১৪ জানুয়ারি, গতকল শুক্রবার থেকে কার্যকর হয়েছে। চীন সফরে গিয়ে এদিন এ ঘোষণা দেন ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ান।

china iran 25 year agreementচীন ইরান ২৫ বছরের চুক্তি, ফাইল ছবি

চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই’র সঙ্গে বৈঠক শেষে চুক্তিটি বর্তমানে বাস্তবায়নের পর্যায়ে প্রবেশ করেছে বলে জানান হোসেইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ান। তিনি বলেন, চীন সফরের প্রস্তুতি নেওয়ার সময় চুক্তিটি ১৪ জানুয়ারি থেকে বাস্তবায়নের দিন চূড়ান্ত করে তেহরান।

আল জাজিরা জানায়, ২৫ বছরের এই চুক্তি নিয়ে বহুমুখী প্রস্তুতির কথা জানিয়েছেন ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তবে ‘স্ট্র্যাটেজিক একর্ড’-এর অধীনে সুনির্দিষ্ট কোনো প্রকল্প বা চুক্তির বিষয়ে কিছু প্রকাশ করেননি তিনি। এ সফরে ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রইসির একটি চিঠি চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের কাছে হন্তান্তর করা হয়। ‘গুরুত্বপূর্ণ বার্তা’র ওই চিঠির বিষয়েও বিস্তারিত কিছু বলেননি হোসেইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ান।

hossein amir abdollahianহোসেইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ান, ফাইল ছবি

২০২১ সালের মার্চে চুক্তিটি সই হয় ইরানের সাবেক প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সময়ে। চুক্তিতে তেহরান ও বেইজিংয়ের অর্থনীতি, সামরিক ও নিরাপত্তা সংক্রান্ত সহযোগিতার কথা বলা হয়েছে। মার্কিন নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে দেশ দুটি এমন চুক্তি করার পাশাপাশি তেলসহ বাণিজ্য অব্যাহত রেখেছে।

ইরান-চীনের কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের ৫০ বছর পূর্তিতে নতুন প্রতিশ্রুতিতে আবদ্ধ হয়েছে তেহরান ও বেইজিং। অর্থনৈতিক সহযোগিতা চালিকাশক্তি হলেও এ সহযোগিতা চুক্তিতে একটি পূর্ণাঙ্গ রোডম্যাপ রয়েছে বলে মনে করা হয়। এ ছাড়া চীনের বেল্ট এন্ড রোড পরিকল্পনায় ইরানের অংশগ্রহণের কথা বলা হয়েছে এ চুক্তিতে।