advertisement
আপনি পড়ছেন

অব্যাহত লোকসানের কারণে দেশের জাতীয় বিমান সংস্থাকে বিক্রি করে দেওয়ার পরিকল্পনা করছে শ্রীলঙ্কার নতুন সরকার। বিপুল পরিমাণ লোকসান বন্ধ হলে তা দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতিকে স্থিতিশীল করতে সাহায্য করবে বলে মনে করা হচ্ছে। খবর ব্লুমবার্গ।

sri lankan airlinesশ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্স

দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে গত সোমবার জাতির উদ্দেশে দেওয়া এক টেলিভিশন ভাষণে বলেছেন, নতুন প্রশাসন শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্সকে বেসরকারিকরণের পরিকল্পনা করছে। ২০২১ সালের মার্চে শেষ হওয়া বছরে সংস্থাটি ৪৫ বিলিয়ন রুপি বা সাড়ে ১২ কোটি ডলার হারিয়েছে।

তিনি বলেন, এই ক্ষতিটা দেশের দরিদ্রদের বহন করতে হবে। অথচ তারা কোনোাদিন বিমানে পা পর্যন্ত রাখেননি।

prime minister ranil wickremesingheরনিল বিক্রমাসিংহে

ফ্লাইটরাডার২৪ নামের একটি ওয়েবসাইটের দেয়া তথ্যমতে, জাতীয় এই বিমান সংস্থাটিতে ২৫টি এয়ারবাস রয়েছে। এর মাধ্যমে ইউরোপ, মধ্যপ্রাচ্যের পাশাপাশি দক্ষিণ এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার গন্তব্যে উড়ে যায় লঙ্কানরা।

প্রসঙ্গত, ১৯৪৮ সালে স্বাধীনতা লাভের পর এই প্রথম কঠিন অর্থনৈতিক সংকটের মুখোমুখি হয়েছে শ্রীলঙ্কা। কোষাগারে বৈদেশিক মুদ্রা তলানিতে ঠেকে যাওয়ার ফলে সংকট আরও ঘোরতর আকার ধারণ করেছে।

দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী যে হিসেবে দিয়েছেন, তাতে এরই মধ্যে দেশটির তেল একেবারেই শেষ হয়ে গেছে। আবার তেল কেনার মতো পয়সাও তাদের হাতে নেই। এ অবস্থায় কীভাবে দেশ চলবে সে ব্যাপারেও কোনো পরিকল্পনা নেই। সব মিলিয়ে কেবল ধৈর্য ধারণ করার পরামর্শ দিয়েছেন রনিল বিক্রমাসিংহে।