advertisement
আপনি পড়ছেন

২০২১ সালে যুক্তরাষ্ট্রে রেকর্ড সংখক সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। নিহত হয়েছে প্রায় ৪২ হাজার ৯১৫ মানুষ। দেশটির ন্যাশনাল হাইওয়ে ট্রাফিক সেফটি অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এনএইচটিএসএ) এ তথ্য দিয়েছে। আগের বছরের তুলনায় এ সময়ে নিহতের সংখ্যা ১০.৫ শতাংশ বেশি। ২০২০ সালে নিহত হয়েছিল ৩৮ হাজার ৮২৪ জন। ২০১৯ সালে এই সংখ্যা ছিল ৩৬ হাজার ৯৬।

record of 42915 in 2021 usaযুক্তরাষ্ট্রে সড়ক দুর্ঘটনায় রেকর্ড, নিহত ৪৩ হাজার

প্রতিবেদনটি এমন সময় প্রকাশ করা হলো, যখন সড়ক নিরাপত্তায় ৬ বিলিয়ন ডলার বরাদ্দের ঘোষণা দিয়েছে দেশটি। এই অর্থ আঞ্চলিক সড়ক নিরাপত্তায় ব্যয় করা হবে। পরিবহনমন্ত্রী পেট বুটিজিগ এ বরাদ্দের ঘোষণা দেন।

এনএইচটিএসএ-এর ডেপুটি অ্যাডমিনিস্ট্রেটর ড. স্টিভেন ক্লিফ বলছেন, সড়ক দুর্ঘটনা একটি বড় সংকট এবং জরুরি ভিত্তিতে এর লাগাম টেনে ধরা দরকার। আমরা আমাদের নিরাপত্তা সহায়তা দ্বিগুণ করেছি। এজন্য কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় প্রশাসনের সহায়তা জরুরি। সড়কে দুর্ঘটনা রোধ করতে পারলে আমাদের অনেক জনশক্তি রক্ষা পাবে।

প্রাথমিক তথ্যে জানা যাচ্ছে, দেশটির ৪৪ স্টেটে সড়ক দুর্ঘটনা ও এর জনিত মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশেষ করে চার চাকার গাড়ির দুর্ঘটনায় পতিত হওয়ার সংখ্যা বেড়েছে ১৬ শতাংশ। ২০২১ সালে রাস্তায় গাড়ি চলাচল বৃদ্ধি পেয়েছে ১১.২ শতাংশ।

হাইওয়ে সেফটি অ্যাসোসিয়েশনের গভর্নর বলছেন, বর্তমানে সড়কে গাড়ির গতি বেড়েছে বলে জরিপে উঠে এসেছে। বেপরোয়া গতিতে চালানো চালকদের সংখ্যা বেড়েছে। সড়ক ব্যবস্থাপনার সাথে গাড়ির গতির সমন্বয়হীনতাও বেড়েছে। নিরাপত্তার চেয়ে সড়ক নির্মাণে গাড়ির গতিবিধিকে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে বিধায় সড়কে দুর্ঘটনা বেশি ঘটছে। অথচ ২০১৭ সালে অনেক কম দুর্ঘটনা ঘটেছিল। সে বছর সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ৩২ হাজার ৭৪৪ জন।

আশার কথা হচ্ছে, সড়ক দুর্ঘটনা রোধে নতুন বিভিন্ন প্রকল্প হাতে নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। এসব প্রকল্পে নতুন লেন কিংবা পথচারী চলাচলে আলাদা রাস্তার কথা বিবেচনা করা হচ্ছে। সড়ক দুর্ঘটনা রোধে গাড়ির গতি ও ট্রাফিক ক্যামেরা সংক্রান্ত ব্যবস্থাপনা কাজে লাগাতে বিশেষ পরিকল্পনাও গ্রহণ করা হয়েছে।