advertisement
আপনি পড়ছেন

সবসময় হামাস ও হিজবুল্লাহর আতঙ্কে থাকা ইসরায়েল এবার নিজেদের ড্রোন লক্ষ্য করেই ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে। ইসরায়েলের আলোচিত ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ‘আয়রন ডোম’ গতকাল বৃহস্পতিবার ভুল করে এ কাণ্ড ঘটায়। খবর আরটি।

israel launch missilesনিজেদের ড্রেন ধ্বংস করেছে ইসরায়েল

খবরে বলা হয়, গতকাল সকাল সোয়া নয়টার দিকে ইসরায়েলে হঠাৎ করেই সাইরেন বেজে ওঠে। শত্রুপক্ষের বিমান হামলার আশঙ্কা দেখা দিলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে এ সাইরেন বেজে ওঠে। এর আওয়াজ শুনে স্থানীয় বাসিন্দারা তৎক্ষণাৎ নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যান।

পরে জানা যায়, শত্রুপক্ষের হামলা নয়, বরং ভুল করে নিজেদের ড্রোনেই ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে আয়রন ডোম। ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর মুখপাত্র এই খবরের সত্যতা স্বীকার করে ঘটনার তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছেন।

israeli iron dome

ইসরায়েলের একজন সামরিক মুখপাত্র জানান, বৃহস্পতিবার সকালে লেবাননের আকাশসীমা থেকে একটি সন্দেহভাজন বিমান বা ড্রোন অনুপ্রবেশ করেছে এ ধারণায় উত্তরের বসতিতে সাইরেন সক্রিয় হয়েছিল। আয়রন ডোম ড্রোনটির দিকে বেশ কয়েকটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে। পরে জানা যায়, ওই ড্রোন আসলে ইসরায়েলেরই, যা ভুলভাবে শত্রুপক্ষের বলে চিহ্নিত করা হয়েছিল।

প্রথমদিকে অবশ্য  ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী শত্রু পক্ষের একটি ড্রোন নামিয়ে আনার কৃতিত্ব দাবি করছিল। ড্রোনটি ইসরায়েলের বলে চিহ্নিত হওয়ার পর সেটি ভূপাতিত করার দাবি অস্বীকার করে সেনাবাহিনী। এ অবস্থায় তারা পরস্পরবিরোধী কথা বলতে শুরু করে। তবে সাইরেন বাজার কথা সবাই স্বীকার করেছে।

খবরে জানা যায়, আয়রন ডোম এর আগেও ভুল করে সক্রিয় হয়েছিল। গত মাসে আয়রন ডোমের দুটি ইউনিট পরস্পরের ছোড়া দুটি ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংস করে। কাছাকাছি অবস্থানে থাকা দুটি আয়রন ডোম থেকে হঠাৎ করেই প্রতিরক্ষামূলক ক্ষেপণাস্ত্র বের হতে থাকে। এ ঘটনাকে আয়রন ডোমের বড় ধরনের কারিগরি ত্রুটি হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে।

পুরো ঘটনায় বিব্রত ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনী। বিশেষ করে শত্রুপক্ষ এ ত্রুটিকে কাজে লাগিয়ে খুব সহজেই ইসরায়েলকে দুর্বল করে ফেলতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।