advertisement
আপনি পড়ছেন

রাশিয়ার হামলার প্রথম দিকে ইউক্রেনকে সাহায্য করলেও সে সময় ভারী অস্ত্র দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিল জার্মানি। যুক্তি ছিল, এতে জার্মানিরও যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। পরে সেই অবস্থান থেকে সরে এসে ইউক্রেনকে ভারী অস্ত্র সহায়তা দেয় জার্মানি। গতকাল বৃহস্পতিবার জার্মানি দেশটিকে আরো সামরিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। খবর আনাদোলু।

chancellor olaf scholzজার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শোলজ

পররাষ্ট্রনীতি নিয়ে পার্লামেন্ট সদস্যদের সাথে বিতর্কের সময় চ্যান্সেলর ওলাফ শোলজ বলেছেন, এই যুদ্ধে রাশিয়াকে জিততে দেওয়া যাবে না। অন্যদিকে ইউক্রেনকে অবশ্যই জয়ী হতে হবে। এ সময় তিনি এই নিষ্ঠুর যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার জন্য রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের তীব্র সমালোচনা করেন।

চ্যান্সেলর শোলজ বলেন, পুতিন বিশ্বাস করেন শান্তির শর্তাবলী নির্ধারণের জন্য তিনি বোমা ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু তার এ ভাবনা ভুল। রাশিয়ার নির্দেশে শান্তি চুক্তি হবে না। কারণ ইউক্রেনীয়রা এটা মেনে নেবে না এবং আমরাও মানব না।

russia ukraine war 4প্রায় তিন মাস ধরে চলছে ইউক্রেন যুদ্ধ

জার্মান চ্যান্সেলর বলেন, নৃশংসভাবে হামলার শিকার হওয়া দেশটির প্রতিরক্ষার জন্য সাহায্য করা প্রয়োজন। যুদ্ধ দীর্ঘায়িত করার সাথে এর কোনো সম্পর্ক নেই। বরং দেশটিকে দেওয়া এ সাহায্য শত্রুদের হামলা প্রতিহত করারই একটি প্রচেষ্টা। যত শীঘ্র সম্ভব এই সহিংসতা বন্ধ করার জন্যই ইউক্রেনকে ভারী অস্ত্রের সহায়তা দেওয়া হবে।

স্কোলজ ইউক্রেনকে কী ধরনের ও কী পরিমাণ অস্ত্র দিতে যাচ্ছেন সে ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানাননি। তবে তিনি উল্লেখ করেন, মিত্র ও অংশীদারদের সাথে সমন্বয় করেই দেশটি ইউক্রেনকে সাহায্যে এগিয়ে যাবে।