advertisement
আপনি পড়ছেন

ইস্তাম্বুলে বিশাল সরকারবিরোধী বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই সমাবেশ কেন্দ্র করে দেশটিতে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত জেফরি ফ্লেককে তলব করেছে আঙ্কারা। তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অভিযোগ, বিক্ষোভের সতর্কতায় মার্কিন দূতাবাসের বিবৃতিতে ভিত্তিহীন দাবি রয়েছে। এজন্য মার্কিন দূতকে তলব করে সতর্ক করে দেওয়া হয়। টিআরটি ওয়ার্ল্ড।

recep tayyip erdogan and jeffrey lane flakeতুরস্কের প্রসিডেন্ট এরদোয়ানের সাথে রাষ্ট্রদূত জেফরি ফ্লেক

মার্কিন দূতাবাসের পক্ষ থেকে সতর্ক করা হয়, তুর্কি কর্তৃপক্ষ সমাবেশে অংশগ্রহণকারীদের ওপর শক্তি প্রয়োগ করতে পারে। রোববার দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

তলব করে মার্কিন দূতকে বলা হয়, সতর্কবার্তা অগ্রহণযোগ্য ছিল। কারণ এর মাধ্যমে ভুল ধারণা তৈরি হয়েছে, যা তুরস্কে গুরুতর সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। রাজনৈতিক দলগুলোর সমাবেশ তুর্কি গণতন্ত্রের একটি গভীর ঐতিহ্য এবং শনিবারের সমাবেশ কোনো হস্তক্ষেপ ছাড়াই সম্পন্ন হয়েছে।

কর্মকর্তারা ফ্লেককে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি ঘটনার কথা মনে করিয়ে দেন, যে ঘটনায় মার্কিন আইন প্রয়োগকারী কর্তৃপক্ষ অসম শক্তির ব্যবহার করেছিল। তুরস্ক আশা করে ভবিষ্যতে এই জাতীয় কোনো সতর্কতা যেন সঠিক তথ্যের ভিত্তিতে দেওয়া হয়।

ওই সমাবেশ ঘিরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তার নাগরিকদের জন্য নিরাপত্তা সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করে। দেশটিতে বসবাসকারী মার্কিন নাগরিকদের সমাবেশস্থল এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেয় দূতাবাস। পৃথক বিবৃতিতে বলা হয়, তুরস্কে গণবিক্ষোভের মতো ইভেন্টগুলোতে সহিংসতার আশঙ্কা করে যুক্তরাষ্ট্র। প্রয়োজন ছাড়া বড় সমাবেশ এবং অনুষ্ঠান এড়িয়ে চলার সুপারিশ করা হলো।

তুরস্কে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ তেমন একটা দেখা যায় না। গতমাসে এক খবরে বলা হয়, তুরস্কের সরকারবিরোধী জোট মূলত নিষ্ক্রিয়। আর সমাবেশ হলেও তাতে মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ থাকে না বললেই চলে।