advertisement
আপনি পড়ছেন

ইসরায়েলের সাথে সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণের ব্যাপারে নিজেদের অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করেছে সৌদি আরব। বিভিন্ন মাধ্যমে নানা ধরনের পরামর্শ দেওয়া সত্ত্বেও এ ব্যাপারে রিয়াদের অবস্থানের কোনো পরবর্তন হয়নি বলে জানিয়েছেন সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান। গতকাল মঙ্গলবার বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামে দেওয়া ভাষণে তিনি এ কথা জানান। খবর আরব নিউজ।

saudi arabias foreign minister prince faisal bin farhan speaksসৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান

ডাভোস প্যানেলে ‘মধ্যপ্রাচ্যে একটি নতুন নিরাপত্তা নকশা’ শিরোনামে এক সম্মেলনে প্রিন্স ফয়সাল আরো বলেন, অতীতে আমরা বিষয়টি নিয়ে অনেকবার কথা বলেছি। কিন্তু পরিস্থিতির কোনো পরিবর্তন হয়নি। সম্পর্ক স্বাভাবিক করাকে আমরা শেষ ফল হিসাবে দেখেছি। মূলত এটি হচ্ছে একটি পথের শেষ পরিণতি।

আমরা সর্বদা কল্পনা করি, ইসরায়েলের সাথে সম্পর্ক পুরোপুরি স্বাভাবিক হবে। আমাদের সাথে এবং এ অঞ্চলের সাথে ইসরায়েলের সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণ অনেক সুবিধা নিয়ে আসবে। কিন্তু ফিলিস্তিন ইস্যুটি এড়িয়ে আমরা সেই সুবিধাগুলো অর্জন করতে সক্ষম হবো না। মার্কিন মধ্যস্থতায় মিশর ও ইসরায়েলের মধ্যে একটি চুক্তি বিষয়ক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

saudi israel relationsসৌদি আরব ও ইসরায়েলের পতাকা

জর্ডানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আয়মান আল সাফাদি বলেন, ফিলিস্তিন-ইসরায়েল বিরোধ অবসানে সম্পূর্ণ কোনো রাজনৈতিক সমাধান নেই। ইসরায়েলিদের আচরণ স্বাভাবিক প্রত্যাশাকে হত্যা করছে, হতাশা বাড়িয়েছে। এসবের সমাধান করা দরকার। এসব বিষয়ে আমাদের নজর দেওয়া দরকার।

সম্মেলনে ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা বাহিনীর হাতে ফিলিস্তিনে আল জাজিরার সিনিয়র সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহ হত্যার ঘটনাটিও উত্থাপিত হয়েছিল। প্যানেলটি এ ঘটনার পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্তের আহ্বান জানিয়েছে।

এ বছরেই ইসরায়েলি হামলায় ৪২ জনেরও বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন উল্লেখ করে সাফাদি বলেন, কেউ কেউ চার, পাঁচ ও দশ হাজার মাইল দূরে থেকে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার কথা বলছে। দূরে অবস্থান করে আমাদের চেয়ে ভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে এটি দেখা সহজ।

তিনি আরো বলেন, প্রশ্নটি সম্পর্ক স্বাভাবিক করা বা না করার নয়, প্রশ্নটি হল আমরা কি এ অবস্থাকে মেনে নেব, যার কারণে সঙ্কট আরো গভীর হতে থাকবে। আমরা বিশ্বাস করি যে, আমাদের এই অঞ্চলের সবকিছুর আন্তঃসম্পর্কের দিকে নজর দেওয়া উচিত।

সম্মেলনে সিরিয়ায় হামলা, ইরানের সাথে সংলাপ ইত্যাদি বিষয়ও আলোচনা হয়।