advertisement
আপনি পড়ছেন

সহিংসতায় এক পুলিশ সদস্য নিহত হওয়ার পর পাকিস্তান সরকার দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ঘোষিত বিক্ষোভ কর্মসূচি নিষিদ্ধ করেছে। নতুন নির্বাচনের দাবিতে ইমরানের দল পিটিআই ওই কর্মসূচি ঘোষণা করেছিল। কিন্তু কর্মসূচি ঘোষণার পর থেকে পাকিস্তানে রাজনৈতিক সংকট আরও বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন সরকার ওই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আজ বুধবার ওই বিক্ষোভ হওয়ার কথা ছিল। আল জাজিরা।

imran khan 19ইমরান খান

দেশজুড়ে ইমরান খানের সমর্থকদের বিরুদ্ধে ক্র্যাকডাউন চালাচ্ছে শাহবাজ সরকার। সহিংসতায় একজন পুলিশ সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছেন। এ ঘটনার কয়েক ঘণ্টা পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রানা সানাউল্লাহ গতকাল মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে ওই কর্মসূচিতে নিষেধাজ্ঞা দেন।

তথ্যমন্ত্রী মরিয়ম আওরঙ্গজেব এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে জানান, ইমরান খানের পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) দলের একজন কর্মকর্তা পুলিশ সদস্যকে গুলি করে হত্যা করেছে। ওই পুলিশ সদস্য তার বাড়িতে গেলে অভিযুক্ত ব্যক্তি গুলি ছোড়ে। এতে পুলিশ সদস্য নিহত হন।

shahbaz sharif pakistan twsdপ্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কাউকে রাজধানী অবরোধ করতে কিংবা এ ধরনের হুকুম দেওয়ার অনুমতি দেওয়া হবে না। মন্ত্রিসভা ওই নিষেধাজ্ঞার অনুমোদন দিয়েছে।

ত্যাগের জন্য প্রস্তুত হও: গতকাল মঙ্গলবার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর পেশোয়ারে এক সংবাদ সম্মেলনে ইমরান খান বলেন, পরিকল্পনা অনুযায়ী পাকিস্তানের রাজধানীতে সমাবেশ হবে। আমি আমার সমর্থকদের ইসলামাবাদ অভিমুখে রওনা হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। আমিও সেখানে থাকব। আমি মৃত্যুকে ভয় পাই না। পাকিস্তানের সার্বভৌমত্বের অনুসারীদের ত্যাগের জন্য প্রস্তুত হতে হবে।

তিনি সরকারের উদ্দেশে বলেন, আপনারা পারলে আমাদের ঠেকান। শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ আমাদের অধিকার, যা অস্বীকার করা যাবে না। তবে তিনি পুলিশ সদস্যের হত্যাকাণ্ডের নিন্দা করেননি।

সাবেক ক্রিকেট তারকা থেকে রাজনীতিবিদ বনে যাওয়া ইমরান খান পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হয়ে পুরো বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন। গত এপ্রিল মাসে সংসদে অনাস্থা ভোটের মাধ্যমে তাকে অপসারণ করা হয়। এর আগে সাড়ে তিন বছরেরও বেশি সময় ধরে তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।