advertisement
আপনি পড়ছেন

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) নেতা ইমরান খানের ওপর নজরদারির ব্যবস্থা করা হচ্ছিল। তবে এর আগেই বিষয়টি ধরা পড়ে যায়। পিটিআই দাবি করছে, সরকারি দলই ইমরান খানের ওপর নজরদারি চালাতে চাইছে।

imran khan 64ইমরান খান

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ইমরান খানের শোওয়ার ঘরে নজরদারির জন্য বিশেষ ‘স্পাই ক্যামেরা’ লাগাতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়ে যায় তারই বাড়ির এক কর্মী। পিটিআই দাবি করছে, প্রতিপক্ষরা ইমরানের গতিবিধির খোঁজ রাখতে তার বাসার লোকজনকে ঘুষ দিয়ে এ কাজ করাচ্ছে।

পিটিআই সূত্রে জানা গেছে, ইসলামাবাদের বানি গালায় ইমরানের বাসায় ‘স্পাই ক্যামেরা’ লাগানোর চেষ্টার অভিযোগে তার একজন পরিচ্ছন্নতা কর্মীকে আটক করা হয়েছে।

spy cam

গত এপ্রিলে ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর থেকে ইমরান খানের জীবনের প্রতি হুমকি সৃষ্টি হয়েছে বলে দাবি করেছেন পিটিআই নেতারা। স্পাই ক্যামেরার বিষয়টি ধরা পড়ার পর বিষয়টি প্রমাণিত হয়েছে বলে তারা দাবি করেছেন।

পিটিআই নেতা শেহবাজ এই ঘটনাকে দুঃখজনক আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, জঘন্য ঘটনা ঘটানো হয়েছে। সরকারসহ সংশ্লিষ্ট সব এজেন্সিকে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

তিনি দাবি করেন, দলের অভ্যন্তরীণ খবর জানতে আমাদের লোকজনকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। কারো নাম উল্লেখ না করে তিনি বলেন, এ ধরনের লজ্জাজনক কাজ এড়ানো উচিত।

ধৃত ওই পরিচ্ছন্নতাকর্মী থেকে এ বিষয়ে বেশকিছু তথ্য পেয়েছেন বলে দাবি করেন শেহবাজ। তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানাতে রাজি হননি তিনি।

অনাস্থা প্রস্তাবে হেরে গিয়ে গত এপ্রিলে প্রধানমন্ত্রিত্ব ছাড়তে বাধ্য হন ইমরান খান। নতুন করে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন শাহবাজ শরিফ।